লাখ টাকার বেশি জমলেই ১৫০ টাকা আবগারি শুল্ক কাটা হচ্ছে

ঢাকা, ০৩ জানুয়ারি – কোনো হিসাবে বছরের যে কোনো সময় ১ লাখ টাকার বেশি জমলে সেই হিসাব থেকে আবগারি শুল্ক হিসেবে ১৫০ টাকা কেটে নেওয়া হচ্ছে। ব্যাংক আমানত থেকে সরকার নির্ধারিত হারে আবগারি শুল্ক কাটছে ব্যাংকগুলো।

ব্যাংক আমানতের উপর একটি নির্দিষ্ট হারে সরকারের কর বা শুল্ককে আবগারি শুল্ক বলা হয়। ২০২০ সালের জুলাই থেকে হিসাব করে বছরান্তে এখন সেই অর্থ রাজস্ব বোর্ডের হয়ে কেটে নিচ্ছে ব্যাংকগুলো।

বর্তমান নিয়মে সারা বছরে যদি ব্যাংক হিসাবে স্থিতি ১ লাখ টাকার কম থাকে, তাহলে কোনো আবগারি শুল্ক দিতে হবে না। কিন্তু সারা বছরের কোনো সময় যদি ব্যাংক হিসাবে ১ লাখ টাকার বেশি কিন্তু ৫ লাখ টাকার কম থাকে, তখন ১৫০ টাকা আবগারি শুল্ক দিতে হচ্ছে।

সারা বছরের কোন সময় যদি ব্যাংক হিসাবে ৫ লাখ টাকার বেশি কিন্তু ১০ লাখ টাকার কম থাকে তখন তাকে ৫০০ টাকা আবগারি শুল্ক দিতে হচ্ছে অ্যাকাউন্ট প্রতি এক বছরের জন্য।

যে সব ব্যাংক হিসাবে বছরের কোনো সময় অর্থের পরিমাণ ১০ লাখ টাকার বেশি হয়েছে, কিন্তু ১ কোটি টাকা ছাড়ায়নি, সেসব হিসাব থেকে ৩ হাজার টাকা আবগারি শুল্ক কাটা হচ্ছে।

ব্যাংক হিসাবে ১ কোটি টাকার বেশি ছিল, কিন্তু ৫ কোটি টাকার কম ছিল, এমন হিসাবধারীদের ১৫ হাজার টাকা আবগারি শুল্ক দিতে হচ্ছে।

সারা বছরের কোনো সময় যদি ব্যাংক হিসাবে ৫ কোটি টাকার বেশি থাকে, তখন ৪০ হাজার টাকা আবগারি শুল্ক দিতে হয়ে।

ব্যাংক ছাড়াও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোয় যেসব গ্রাহক টাকা জমা রাখেন, তাদের হিসাবেও নির্ধারিত অঙ্কের জমার বিপরীতে আবগারি শুল্ক আদায় করা হয়। বছরের যে কোনো সময়ে একবার কোনো হিসাবে নির্ধারিত অঙ্কের চেয়ে বেশি টাকা জমা হলেই ওই গ্রাহকের আবগারি শুল্ক বাবদ নির্ধারিত অঙ্কের টাকা কেটে রাখা হয়।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/০৩ জানুয়ারি ২০২২

লাখ টাকার বেশি জমলেই ১৫০ টাকা আবগারি শুল্ক কাটা হচ্ছে

সূত্রঃ দেশে বিদেশে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: