ছেলেকে মোবাইল চুরির অভিযোগ, হাতুড়ি পেটা করে হত্যা বাবাকে

ফরিদপুরের নগরকান্দায় মোবাইল চুরির অভিযোগ হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে একজনকে হত্যার খবর পাওয়া গেছে। বুধবার (১০ জুন) উপজেলার কোদালিয়া শহীদনগর ইউনিয়নের ঈশ্বরদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ চারজনকে আটক করেছে। নিহতের পরিবারের দাবি, পরিকল্পিত হত্যা।

নিহত ব্যক্তির নাম আতর আলী মুন্সী (৫৫)। তিনি ওই গ্রামের এসএম মুন্সীর ছেলে।

আটক ব্যক্তিরা হলেন- রাসেল মুন্সী (৩০), জুয়েল মুন্সী (২৭), জনি মুন্সী (২২) ও তাদের মা ঝর্না মুন্সী (৪৫)।

জানা গেছে, পৌরসভার কলেজ বালিয়া গ্রামের রাসেল মুন্সীর মোবাইল ফোন হারিয়ে গেলে আতর আলী মুন্সীর ছেলেকে সন্দেহ করা হয়। পরে বুধবার সকালে রাসেল আতর আলীকে নিজ বাড়িতে ডেকে নেন মোবাইল ফেরত চাওয়া হয়। এসময় আতর আলী বলেন, আমার ছেলে বাড়িতে থাকে না, সে কিভাবে তোমাদের মোবাইল চুরি করলো! এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রাসেল মুন্সী ও তার দুই ভাই মিলে আতর আলীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে।

আহত অবস্থায় তাকে নগরকান্দা উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে নিয়ে আসেসন। পরে রাত আনুমানিক ৮টার দিকে আতর আলী আবার অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের লোকজন হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

আতর আলীর স্ত্রী মিলি বেগমের অভিযোগ, আমার চাচাতো দেবর ফারুক মুন্সীর সঙ্গে স্বামীর জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। ফারুকের ছেলেরা আমার স্বামীকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে।

নগরকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ সোহেল রানা বলেন, এ ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ফরিদপুর মর্গে পাঠানো হয়ছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ইত্তেফাক/এসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: