করোনার উপসর্গে আরো ১২ জনের মৃত্যু

করোনার উপসর্গ জ্বর, গলাব্যথা, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনা পরীক্ষার জন্য মৃতদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। মৃতদের মধ্যে বিজিবি সদস্য, শিক্ষক, ব্যবসায়ী ও ব্যাংক কর্মচারী রয়েছেন। খবর আমাদের অফিস, প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের।

ভালুকা (ময়মনসিংহ) :ভালুকায় করোনার উপসর্গ নিয়ে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে একজন স্কয়ার ফ্যাশন কারখানার কর্মকর্তা শচীন্দ্র নাথ। অপরজন মাহবুবুল আলম। সোমবার বিকালে ময়মনসিংহের এস কে হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় শচীন্দ্র নাথের মৃত্যু হয়। তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন ময়মনসিংহের সিভিল সার্জন ডা. এ বি এম মসিউল আলম। অন্যদিকে মাহবুবুল আলমের মৃত্যু হয় উপজেলার বড়চালা গ্রামে নিজ বাড়িতে। তিনি ঐ গ্রামের মৃত ইব্রাহিম মিয়ার ছেলে।

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) :চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার বিকালে চাঁদপুর সদর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন বলাখাল ২ নম্বর ওয়ার্ডের উকিলবাড়ির লক্ষণ চক্রবর্তী (৬০) চিকিত্সাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। অন্যদিকে মঙ্গলবার বেলা ১১টায় হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন লাল মিয়া দরবার শরিফের খাদেম নুনু মিয়া হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর করোনা উপসর্গে মারা যান। এ নিয়ে এ উপজেলায় মোট ৪৭ জন করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন।

আরও পড়ুন: তিস্তার পানি বিপদসীমার ৮ সেন্টিমিটার নিচে

লালপুর (নাটোর) : জেলার লালপুর উপজেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে ইয়াসির আলী (৪৫) নামের এক বিজিবি সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। তিনি গোপালপুর পৌর এলাকার মৃত ইমান আলী হাজির ছেলে।

বরিশাল :বরিশালে শেবাচিম হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার সকালে এ বি এম খলিলুর রহমান (৫০) নামে একজন মারা গেছেন। তিনি নগরীর ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত জহুর আলীর পুত্র। গত রবিবার তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

খুলনা :খুলনায় করোনার উপসর্গ নিয়ে রওশন মোল্লা (৮৫) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। তিনি নগরীর ফুলবাড়িগেট এলাকার মৃত রহিম বক্সের ছেলে।

আদমদীঘি (বগুড়া) :বগুড়ার আদমদীঘিতে গত সোমবার রাতে ব্যাংক কর্মচারী রাজিব কুন্ডু করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। উপজেলার চাঁপাপুর ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর গ্রামের সেবক কুন্ডুর ছেলে রাজিব বগুড়া যমুনা ব্যাংক বড়গোলা শাখার হিসাবরক্ষক পদে কর্মরত ছিলেন।

নাঙ্গলকোট ও লাকসাম (কুমিল্লা) :নাঙ্গলকোটে করোনার উপসর্গে শিক্ষক মো. ইকবাল হোসেন মজুমদার মিঠু (৪৮) মারা গেছেন। মঙ্গলবার সকালে কুমেক হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ইকবাল হোসেন লাকসাম উপজেলার গোবিন্দপুর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন।

বাজিতপুর (কিশোরগঞ্জ) :করোনার উপসর্গ নিয়ে কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলার সরারচর এলাকার লেপতোশক ব্যবসায়ী (৬৫) মো. ফরিদ উদ্দিন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মারা গেছেন।

দোহার-নবাবগঞ্জ (ঢাকা) :ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে প্রমীলা ভেরনীকা গমেজ (৮৮) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার গোল্লা গির্জায় তার সত্কার হয়। প্রমীলা উপজেলার যন্ত্রাইল ইউনিয়নের গুরগুলিবাড়ির বালির ডিয়র গ্রামের সিমফম গমেজের স্ত্রী। গত ১৩ জুন তিনি মারা যান।

শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) :হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে শহিদ উদ্দিন জিসনু (৪৮) নামে এক জনের মৃতু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে তিনি মারা যান। শহিদ উদ্দিন জিসনু শায়েস্তাগঞ্জ আঞ্চলিক যুবলীগের সভাপতি ও উবাহাটা আজিজিয়া মহিলা মাদ্রাসার শিক্ষক ছিলেন।

ইত্তেফাক/এসি

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: