চিফ হুইপের নির্দেশনায় শিবচরে জোন ভিত্তিক লকডাউনে সক্রিয় নেতা-কর্মীরা

মাদারীপুরের শিবচরে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ ও আওয়ামী লীগ পার্লামেন্টারি পার্টির সেক্রেটারি নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটনের নির্দেশনা অনুযায়ী শিবচর উপজেলার জোনভিত্তিক লকডাউন বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে কঠোর পরিশ্রম করছেন পৌর মেয়রসহ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

শনিবার (২০ জুন) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. সেলিম ও পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন খানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ প্রথমে শিবচর পৌরসভা থেকে শুরু করে দ্বিতীয়খন্ড, কাদিরপুর, কুতুবপুর, কাঁঠালবাড়ী, মাদবরেরচর, পাঁচ্চর, উম্মেদপুর, ভদ্রাসন, ভান্ডারীকান্দি, বাঁশকান্দি, বহেরাতলা উত্তর ও বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন।

এ সময় তাদের সাথে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ইউনিয়নে উপস্থিত ছিলেন-শিবচর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইলিয়াস পাশা, সাধারণ সম্পাদক খায়রুজ্জামান খান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক মুন্সী, মাদবরেরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আ. হালিম রাঢ়ী, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাজিব ঢালী, সাধারণ সম্পাদক আসিফ হোসেন মাদবর, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিব বেপারীসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি। এছাড়া পৌর ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

আরো পড়ুন: রংপুর বিভাগের চার জেলায় হঠাৎ বন্যা

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে নতুন করে বেড়ে যাওয়ায় শিবচরে রেড জোন অন্তর্ভুক্ত পৌরসভার ৩ টি ওয়ার্ডসহ ৯ ইউনিয়নে পূর্ণাঙ্গ রূপে লকডাউন বুধবার থেকে কার্যকর হয়েছে। পৌরসভার ১, ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ড রেড জোনভুক্ত। বাকি ইউনিয়নগুলো হলো-শিবচর, দ্বিতীয়খন্ড, বহেরাতলা দক্ষিণ, বাশকান্দি, ভদ্রাসন, কাদিরপুর, মাদবরচর ও পাচ্চর।

ইয়েলো জোনে ৪ ইউনিয়ন হলো-বহেরাতলা উত্তর, উমেদপুর, চরজানাজাত ও কুতুবপুর। গ্রিন জোনে ৭ ইউনিয়ন হলো-দত্তপাড়া, শিরুয়াইল, নিলখী, সন্ন্যাসীরচর, বন্দরখোলা, কাঠালবাড়ি ও ভান্ডারীকান্দি।

রেড জোনে নিত্যপ্রয়োজনীয় দোকান ও ব্যাংক সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত খোলা ছাড়া সকল দোকান ৩০ জুন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। ইয়োলো জোন অন্তর্ভুক্ত ইউনিয়নগুলোতে নিত্যপ্রয়োজনীয় দোকান ও ব্যাংক সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত খোলা ছাড়া সকল দোকান ৩০ জুন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

গ্রিন জোনে পূর্বের স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করে সকল দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে। রেড ও ইয়োলো জোনভুক্ত এলাকায় যানবাহন কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। এক জোনের বসবাসকারীরা অন্য জোনে প্রবেশে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে এ সংক্রান্ত এক সভা শিবচর উপজেলা পরিষদে অনুষ্ঠিত হয়।

ইত্তেফাক/এএএম

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: