শিবচরে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বপ্রাপ্ত যুব ও ক্রীড়া সচিবের সভা 

করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের প্রথম কনটেইনমেন্ট ঘোষিত শিবচরে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে এসেছেন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বপ্রাপ্ত যুব ও ক্রীড়া সচিব মোঃ আখতার হোসেন। শুক্রবার দুপুরে তিনি উপজেলা পরিষদে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে সরাসরি সম্পৃক্ত নির্ধারিত প্রশাসনিক কর্মকর্তা, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, চিকিৎসক, জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দদের নিয়ে সভা করেন।

সভায় পিসিআর ল্যাব স্থাপন, রেডজোনে প্রশাসনের সমন্বয়ে অভিযানসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। এসময় তিনি উপজেলাটির করোনা পরিস্থিতির সার্বিক খোজখবর নেন। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাদারীপুরের সদ্য যোগদানকারী জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন। শিবচর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে এতে আরো উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন খান, উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভুমি) এম রকিবুল হাসান, শিবচর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান ফাহিমা আক্তার, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল লতিফ মোল্লা, সাধারন সম্পাদক ডাঃ মোঃ সেলিম, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি তোফাজ্জেল হোসেন তোতা খান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: শশাঙ্ক চন্দ্র ঘোষ, উপজেলা পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা সত্য রঞ্জন রায় প্রমুখ।

যুব ও ক্রীড়া সচিব মোঃ আখতার হোসেন সভায় বলেন, সামনে কোরবানির ঈদ। এ ঈদে মানুষকে গ্রামে আসতে নিষেধ করবেন। কারন মানুষের ঢলে করোনা সংক্রমন আরো বাড়তে পারে। যদি কেউ আসে তাকে অবশ্যই ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতেই হবে। আমি শিবচরবাসিকে ধন্যবাদ জানাই। দেশের প্রথম কনটেইনমেন্টের পর সবাই চিন্তিত ছিল শিবচর নিয়ে। আল্লাহর রহমতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। এক্ষেত্রে জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ ও স্থানীয় ৬ বারের সংসদ সদস্য নূর-ই-আলম চৌধুরী সাহেবের তৎপরতায় প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, জনপ্রতিনিধি, আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ, স্বাস্থ্যকর্মী স্বাস্থ্য বিধি কর্মসূচী কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করছে। চীফ হুইপ মহোদয় করোনা রুগীদের জন্য নিজ উদ্যোগে যা করছেন তা দৃষ্টান্ত। সারাদেশে সংক্রমনের সংখ্যা যেভাবে বেড়েছে সেখানে এ উপজেলায় নিয়ন্ত্রনে রয়েছে ।

অনেকেই সুস্থ হয়ে গেছে। আক্রান্তদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে কনটেইনমেন্ট করার উপর তাগাদা দেন তিনি। সভা শেষে তিনি জেলার অন্যান্য উপজেলার উদ্দ্যেশে রওনা করেন।

ইত্তেফাক/আরকেজি

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: