করোনার উপসর্গ নিয়ে আরো ১৩ জনের মৃত্যু

মহামারি করোনার উপসর্গ জ্বর, গলাব্যথা, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্টে আরো ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনার পরীক্ষার জন্য মৃতদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে এদের দাফন করা হয়েছে। গতকাল ইত্তেফাকের ব্যুরো, জেলা প্রতিনিধি ও উপজেলা সংবাদদাতাদের পাঠানো খবরের আলোকে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে।

কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে উপসর্গ নিয়ে আরো চার জন মারা গেছেন। শনিবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় এরা মারা গেছেন। হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. সাজেদা খাতুন এসব তথ্য জানিয়েছেন। এ নিয়ে এই হাসপাতালে করোনা উপসর্গে ১২২ জন মারা গেল।

সুনামগঞ্জের ছাতকে করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে শাহীন চৌধুরী (৩৮) নামে এক ব্যবসায়ী মারা গেছেন । তিনি ছাতক উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ছিলেন। শুক্রবার রাতে সিলেট নগরীর নর্থ-ইস্ট হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

বাগেরহাটের ফকিরহাট সদর ইউনিয়নের আট্টাকী ওয়ার্ডে আব্দুস ছালাম (৫২) নামে এক গ্রাম পুলিশ মারা গেছেন। সাতক্ষীরা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে শুক্রবার বিকালে সদর উপজেলার আলীপুর ইউনিয়নের এক বাসিন্দা মারা গেছেন। তিনি জ্বর, সর্দি, কাশিসহ নানা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে আসেন। ঝিনাইদহ ১০০ শয্যাবিশিষ্ট সদর হাসপাতালে মো. শামছুল আলী (৫০) নামে এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। উপসর্গ নিয়ে গতকাল সকালে ভর্তি হওয়ার পর বেলা ২টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

বগুড়ায় করোনার উপসর্গ নিয়ে তিন জন মারা গেছেন। বগুড়ার জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে মারা যান বগুড়ার কাহালু উপজেলার আড়োলা গ্রামের রুবেল হোসেনের স্ত্রী রওশন আরা (৩৫) ও সিরাজগঞ্জ জেলার মোসলিম মণ্ডল (৭৫) ও উল্লাহপাড়ার ঘোষগাঁতীর সমর সরকার (৫০)। ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে গতকাল গোপাল কুণ্ড নামে এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি পৌরসভার বড় কামারগ্রামের গোবিন্দ কুণ্ডর ছেলে ও উপজেলা নিউ মার্কেটের কুণ্ড স্টোরের স্বত্বাধিকারী। কিশোরগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে মাহফুজুর রহমান নামে সাবেক ফুটবলারের মৃত্যু হয়েছে।

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: