মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে কৃষককে হত্যার অভিযোগ

নালিতাবাড়ী উপজেলায় চাঁই দিয়ে মাছ ধরাকে ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের মারধরে এক কৃষককে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত কৃষকের নাম কুদরত আলী (৪৫)। তিনি উপজেলার গোজাকুড়া দোয়াইরাপাড়া গ্রামের মৃত আমজাদ হোসেনের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার দুপুরের দিকে নিহতের শিশু ছেলে সুজন মাছ ধরতে বাড়ির অদূরে হাবিবুরের ক্ষেতের আইলে চাঁই (বাইর) বসায়। এসময় প্রতিবেশি মোহাম্মদ আলী (৬০) ও তার ছেলে সাইদুল (৪৫) মাছ ধরার চাঁই তোলে অন্যত্র সড়িয়ে রাখে। খবর পেয়ে সুজনের পিতা কুদরত একই স্থানে পুনরায় চাঁই বসাতে চাইলে মোহাম্মদ আলী ও তার ছেলে সাইদুল বাঁধা প্রদান করে। এতে উভয় পক্ষে তর্কের একপর্যায়ে মোহাম্মদ আলী ও তার ছেলে সাইদুল কুদরতকে ক্ষেতে ফেলে মারধর করে আহত করে। পরে কুদরত আলীকে আহত অবস্থায় রিকশাযোগে নালিতাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এলাকাবাসী আরও জানান, অভিযুক্ত মোহাম্মদ আলী ও তার ছেলে-মেয়েরা এলাকার অনেক মানুষের সাথে বিভিন্ন সময় ঝগড়া-বিবাদে লিপ্ত হয়েছে বেশকিছু লোককে কুপিয়ে আহত করেছে।

এ বিষয়ে পুলিশের নালিতাবাড়ী সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, ঝগড়া হয়েছে শোনেছি, তবে মারামারি হয়েছে কি না তা নিশ্চিত নই। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

ইত্তেফাক/কেকে

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: