উখিয়ার থাইংখালী খালের ১৫টি স্পটে অবৈধ বালি উত্তোলন

উখিয়ার থাইংখালী খালের ১৫টি স্পট থেকে অবৈধভাবে বালি উত্তোলন করা হচ্ছে প্রতিনিয়ত। ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালি উত্তোলন ও ভারী যানবাহন দিয়ে উত্তোলিত বালি পাচার করার ফলে থাইংখালী তেলখোলা ৪ কিলোমিটার গ্রামীণ সড়ক বিলীন হয়ে গেছে। সড়ক নির্মাণ করতে গিয়ে ঠিকাদারকে পোহাতে হচ্ছে অসহনীয় দুর্ভোগ। গ্রামীণ যোগাযোগ বিপন্নের কারণে তেলখোলা মোছারখোলাসহ ২০টি গ্রামে ৫০ হাজার মানুষ ঘরবন্দি হয়ে পড়ার অভিযোগ উঠেছে। ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠির উত্পাদিত পণ্যসামগ্রী সময়মতো বাজারজাত করতে না পারায় তাদেরকে দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করতে হচ্ছে। অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছে অধিকাংশ হতদরিদ্র পরিবার।

সরেজমিন থাইংখালী ব্রিজ হয়ে তেলখোলা-বটতলী পর্যন্ত বয়ে যাওয়া খাল প্রত্যক্ষ করে স্থানীয় গ্রামবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, থাইংখালী এলাকার ১৫ সদস্যের একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরকে ম্যানেজ করে এ খালটি নিয়ন্ত্রণ করে ভোগদখল করছে দীর্ঘদিন থেকে। তেলখোলা ঢালার মুখ গ্রামের অজিউল্লাহ (৫৫), সেকান্দর আলীসহ (৬০) একাধিক ক্ষতিগ্রস্ত লোকজন জানান, অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের ফলে তাদের বাপ-দাদার ভিটেমাটি খালের ভাঙনে বিলীন হয়ে গেছে। নিজস্ব জমিজমা না থাকায় তাদেরকে বনভূমির জায়গায় আশ্রয় নিতে হয়েছে।

পালংখালীর তেলখোলা ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার মানিক চাকমা স্থানীয় হেডম্যান বাউনো চাকমা জানান, স্থানীয় গণ্যমান্য ও সমাজ সর্দার শাহজাহান অভিযোগ করে বলেন, বর্তমানে টানা বৃষ্টির ফলে তেলখোলা বটতলী থেকে থাইংখালী পর্যন্ত সড়কপথ অচল হয়ে পড়েছে। নির্মাণাধীন সড়কগুলো বড় বড় খানা-খন্দক ও গর্তে পরিণত হয়েছে। এ সড়কপথ কবে নাগাদ উন্নয়নের আলো দেখবে তা কেউ সঠিক দিকনির্দেশনা দিতে পারছে না।

ইত্তেফাক/এমএএম

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: