আওয়ামী লীগ নেতাকে পুঁতা ও রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করলো স্ত্রী 

মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইলিয়াস আহম্মেদ হাওলাদারকে পুঁতা ও রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছেন তার স্ত্রী মিলি আক্তার। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার আনুমানিক ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে শহরের সৈয়দারবালী এলাকায় ইলিয়াস আহম্মেদের নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মতো বুধবার রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন ইলিয়াস আহম্মেদ। পারিবারিক কলহের জেরে বৃহস্পতিবার ভোরে পুঁতা দিয়ে ইলিয়াসের মাথায় আঘাত করেন স্ত্রী মিলি। পরে রড দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করা হয়। সকালে গুরুতর অবস্থায় এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দুপুরে চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আরএমও ডা. অখিল সরকার বলেন, সকাল সাড়ে ৭টার দিকে গুরুতর আঘাত নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ইলিয়াস। তার মাথার তিনটি স্থানে আঘাত ছিল। হাতেও আঘাতের চিহ্ন আছে। মাথায় বেশ কয়েকটি সেলাই দিতে হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দুপুরে আমরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠাই।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) রেজাউল করিম বলেন, ‘পারিবারিক ঝগড়া থেকে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য ইলিয়াস আহম্মেদকে ঢাকায় পাঠিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। বিষয়টি পারিবারিক। তাই এখনো কোনো আইনি সিদ্ধান্তে আমরা যাইনি।’

জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র খালিদ হোসেন বলেন, ‘ঘটনা শুনে আমরা হাসপাতালে যাই। পরে তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কী কারণে তার স্ত্রী এ রকম করল, তা আমাদের জানা নেই। পারিবারিক কলহের জের ধরেই হয়তো ঘটেছে। তাই আমরা এ বিষয় নিয়ে মাথা ঘামাইনি। তার স্ত্রী অ্যাজমার রোগী।’

ইত্তেফাক/জেডএইচ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: