অপহরণকারীদের গ্রেফতার, গার্মেন্টস কর্মী উদ্ধার

কুমিল্লা ইপিজেডের একটি শিল্প কারখানার (গার্মেন্টস) এক নারী শ্রমিককে অপহরণ করে ৩০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবির ঘটনায় মুক্তিপণের টাকা দেওয়ার ফাঁদ পেতে চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এসময় ওই গার্মেন্টস শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়। বুধবার গভীর রাতে নগরীর টমছমব্রিজ এলাকায় র‌্যাব এ অভিযান চালায়।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে- কুমিল্লার লালমাই উপজেলার ছনগাঁও গ্রামের আমান উল্লাহর ছেলে আবদুল মমিন (২০), নগরীর শাকতলা এলাকার মৃত মনির হোসেনের ছেলে মো. সিয়াম (১৯), সদর দক্ষিণ উপজেলার উড়াশার গ্রামের আবু মিয়ার ছেলে সাইমন হাসান (১৯) ও চৌদ্দগ্রাম উপজেলার জামিয়া গ্রামের আবদুর রহিমের ছেলে আরিফ হোসেন (১৯)। এ ঘটনায় সদর দক্ষিণ মডেল থানায় মামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লাস্থ র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর কার্যালয়ে কোম্পানি কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুস সাকিব এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি আরো জানান, কুমিল্লা ইপিজেডের একটি গার্মেন্টসের এক নারী শ্রমিক বুধবার (১৯ আগস্ট) রাত ৮টার দিকে ডিউটি শেষে বাসায় ফিরছিলেন। এসময় অপর একটি কারখানার আবদুল মমিন নামের এক শ্রমিক ওই নারী শ্রমিককে বেশি বেতনে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে কৌশলে অপহরণ করে। পরে তাকে ইপিজেডের বাইরের একটি দোকানে নেয় এবং সেখানে থাকা আরো কয়েকজন মিলে ওই নারী শ্রমিককে আটকে রাখে।

এসময় অপহরণকারীরা ওই নারী শ্রমিকের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে তার বাবাকে ফোন করে ৩০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। ঘটনা জেনে র‌্যাব অভিযানে মাঠে নামে এবং ভিকটিমের মা এর মাধ্যমে টাকা দেওয়ার ফাঁদ পেতে মোবাইল ফোনে অপহরণকারীদের নগরীর টমছমব্রিজ এলাকায় আসার জন্য বলা হয়।

রাত ১২টার দিকে তারা ভিকটিমকে নিয়ে মুক্তিপণের টাকার জন্য টমছমব্রিজ এলাকায় আসে। এসময় র‌্যাব সদস্যরা অপহরণকারী চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করে এবং ভিকটিমকে উদ্ধার করে।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: