বাড়িঘর লুটপাটের অভিযোগ করায় বাড়িতে ফিরতে পারছেন না বাদী 

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সঙ্গবদ্ধভাবে বাড়িতে প্রবেশ করে বেধড়ক মারধর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) উপজেলার আরাজি চন্দনচহট (মালিবস্তি) গ্রামের সামসুউদ্দিনের ছেলে নিম্নবিত্ত কৃষক মাহামুদুল হকের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযোগ করায় বাদী বাড়িতে ফিরতে পারছেন না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী মাহামুদুল গত ১৯ আগস্ট বাদী হয়ে রাণীশংকৈল থানায় ১২ জনের নামে লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ৯ আগস্ট রবিবার রাত ১০ টার দিকে মাহামুদুল বোনের বাড়িতে যাওয়ার পথে কাশিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ফজলুল রহমান তাকে মুঠোফোনে পার্শ্ববর্তী মহারাজা বাজারে ডেকে নেয়। সেখানে সে তার লোকজনসহ মাহামুদুলকে বেধড়ক মারপিট করে এবং তার কাছে থাকা ১ লক্ষ ৫৫ হাজার টাকা ও একটি মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ঐ রাতেই অসুস্থ মাহামুদুলকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে ভর্তি করান।

আরও পড়ুন: ঢাকা-১৮ আসন উপনির্বাচনে মাহমুদ সাজ্জাদের মনোনয়ন সংগ্রহ

গত ১২ আগস্ট মাহমুদুল হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়ে ঐ দিনেই জেলা আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। এই মামলার জের ধরে গত ১৮ আগস্ট ফজলুর রহমান তার দলবল লাঠিসোটা নিয়ে মাহামুদুলের বাড়িতে চড়াও হয়। হামলাকারীরা তার পরিবারের লোকজনকে বেধড়ক মারপিট করে ও ১লক্ষ ২৫ হাজার টাকা, স্বর্ণালংকার, ৩ টি গরু, ৩ টি ছাগল, আসবাবপত্র ও অন্যান্য মালামাল নিয়ে যায়। ঐ রাতেই মাহামুদুল থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে ফজলুর বাড়ি থেকে কিছু মালামাল উদ্ধার করে। পরদিন ১৯ আগস্ট এ ঘটনায় মাহামুদুল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

এ ব্যপারে থানার ওসি এস এম জাহিদ ইকবাল বলেন, ‘বাদীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনার তদন্ত অব্যাহত আছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘ইতিমধ্যে স্থানীয় নেতারা বিষয়টির আপোষ মীমাংসা করবেন বলে আমাকে জানিয়েছেন।’

এ দিকে বিবাদী পক্ষের হুমকিতে গত ৯ আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত মাহামুদুল বাড়িতে ফিরতে পারছেন না।

ইত্তেফাক/এএএম

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: