এইচএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি

প্রিয় শিক্ষার্থীবৃন্দ ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ের প্রথমপত্র হতে একটি উদ্দীপক এবং উদ্দীপকের আলোকে এর উত্তর প্রদান করা হলো।

উদ্দীপক: Lub-rref (Bangladesh) Ltd. মানসম্মত Lubricants উত্পাদনকারী একটি প্রতিষ্ঠান। উক্ত প্রতিষ্ঠানে BNO নামে Lubricants উত্পাদন করে থাকেন। BNO Band পণ্যের স্বতন্ত্র সূচক প্রতীক। যা সকলের নিকট পণ্যকে পরিচিত করে তোলেন, তাতে মালিক, ক্রেতা ও বিক্রেতা ভিন্ন ভিন্ন সুবিধা উপলব্ধি করে থাকেন।

ক) প্যাটেন্ট কী?

খ) পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণে BSTI এর ভূমিকা ব্যাখ্যা করো ?

গ) উপরের উদ্দীপকে কোন আইনি সহায়তার কথা বলা হয়েছে? আলোচনা করো।

ঘ) উদ্দীপকে উক্ত আইনি সফলতার সুবিধা কীভাবে মূল্যায়ন করবে? আলোচনা করো।

ক নং প্রশ্নে উত্তর: প্যাটেন্ট হলো নতুন আবিষ্কৃত ও নিবন্ধিত পণ্য বা বস্তুর উপর আবিষ্কারকের এমন একচ্ছত্র অধিকার যার বলে তিনি এটি তৈরী, উন্নয়ন, ব্যবহার ও বিক্রয়ের একক অধিকার ভোগ করেন।

খ নং প্রশ্নের উত্তর: বাংলাদেশে পণ্যের মান নির্ধারণ, পণ্যমান পরীক্ষা ও মাননিশ্চিত করার জন্য যে সরকারি প্রতিষ্ঠান সক্রিয় রয়েছে তাকে BSTI বলে।

শিল্প,খাদ্য ও রাসায়নিক পণ্যের ক্ষেত্রে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক মানের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বাংলাদেশের জন্য একটা জাতীয় মান তৈরী করা এবং ঐ মান নিশ্চিত করার ব্যবস্থা করা BSTIএর কাজ। এর ফলে উত্পাদনকারী শিল্প বা রাসায়নিক প্রতিষ্ঠান পণ্যের মান ওজন ও পরিমাপ সঠিক ও যথার্থ রাখতে বদ্ধ পরিকর। তাই সঠিক মান নিয়ন্ত্রণে BSTI অর্থাত্ Bangladesh standards testing institution বিশেষ ভুমিকা পালন করে থাকে।

গ নং প্রশ্নের উত্তর: উপরের উদ্দীপকে আইনি সহায়তা বলতে ট্রেড মার্কের কথা বলা হয়েছে।

এটি হলো পণ্য বা ব্যবসায়ের এমন কোনো স্বতন্ত্রসূচক বৈশিষ্ট্য. চিহ্ন বা প্রতীক যা সকলের নিকট ব্যবসায় বা পণ্যকে সহজে পরিচিত করে তোলে এবং এর মালিকের তা ব্যবহারের একচ্ছত্র অধিকার নির্দেশ করে।

উপরের উদ্দীপকে Lubricants উত্পাদনকারী প্রতিষ্ঠনটি BNO Band এর পণ্য উত্পাদন করে থাকে। এই BNO Band এর পণ্যের একটি স্বতন্ত্রসূচক বৈশিষ্ট্য বা একটি চিহ্ন বা একটি প্রতীক যার ফলে নামে ও ব্র্যান্ডে এবং স্টাইলে এটি সকলের নিকট নিজেকে পরিচিত করে তোলে। যার ফলে পণ্যটি চিনতে যেমন সুবিধা হয় তেমনি প্রতিষ্ঠান এর নিরবিচ্ছিন্ন অধিকার ভোগ করে থাকেন। আর এটিই হলো ট্রেডমার্ক।

ঘ নং প্রশ্নের উত্তর: উপরের উদ্দীপকে ট্রেডমার্কের সুবিধার বিশেষত্ব তুলে ধরা হয়েছে।

উত্পাদনকারী পণ্যের মালিক, ক্রেতা, ভোক্তা এমন কি বিক্রেতা পণ্যের পরিচিতিতে যে সুবিধা ভোগ করে তা হলো ট্রেডমার্ক সুবিধা। এর ফলে ক্রেতা বা ভোক্তা কোনো সঠিক পণ্য চিনতে যেমন সুবিধা হয় তেমনি মালিকদের ও সঠিক পণ্য উত্পাদনে দায়বদ্ধতা সৃষ্টি হয়।

উপরের উদ্দীপকের প্রতিষ্ঠানটি উত্পাদনকারী প্রতিষ্ঠানসমূহ উত্পাদিত পণ্যের গুণগতমান বজায় রাখার ব্যাপারে বেশ সচেষ্ট। এতে তাদের পণ্যের চাহিদা যেমন ক্রমবর্ধমান হারে বৃদ্ধি পায় তেমনি প্রতিষ্ঠানে মুনাফার হারও সেই হারে বৃদ্ধি পায় ফলে প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন টিকে থাকার ব্যাপারে স্বীকৃতি লাভ করে।

ফলে পণ্যের পরিচিতি ব্যাপক থেকে ব্যাপকতর হয়। এটিই ট্রেডমার্কের সুবিধা। পণ্যের বিক্রয় বৃদ্ধি, ব্যাপক পরিচিতি চিহ্ন বা প্রতীক দেখলে পণ্যের ব্যাপারে ইতিবাচক ধারণা নি:সন্দেহে একটি বড় বিষয়। কারণ এতে এটি পণ্যের মূল্যায়নের পথকে প্রশস্থ করে। এভাবে ট্রেডমার্ক পণ্যকে মূল্যায়ন করে থাকে।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: