‘ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী মুক্তিযোদ্ধা সন্তান বৃত্তি’ পেলেন দুই হাজার শিক্ষার্থী

‘ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী মুক্তিযোদ্ধা সন্তান বৃত্তি’ পেলেন দুই হাজার শিক্ষার্থী। পাঁচ বছর ধরে চলে আসা এই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে মুক্তিযোদ্ধাদের পরবর্তী প্রজন্মের এই শিক্ষার্থীদের হাতে অর্থ প্রদান করল ভারত সরকার।

সোমবার ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশন শিক্ষার্থীদের বৃত্তির অর্থ প্রদান করে। এ সময় শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময় করেন ঢাকায় ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ। বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা জানান, করোনাকালে এই বৃত্তির অর্থ তাদের জন্য অত্যন্ত উপকারী হবে।

ভারত সরকার পাঁচ বছর ধরে বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধাদের উত্তরাধিকারীদের মধ্যে ১০ হাজার জনকে বৃত্তি দেয়ার উদ্যোগ নেয়। ২০১৭-১৮ সালে চালু হওয়া এই বৃত্তি প্রকল্পের আওতায় প্রতি বছর উচ্চ মাধ্যমিকের এক হাজার ও স্নাতক পর্যায়ের এক হাজার জন করে মোট দুই হাজার শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেয়া হয়।

ঢাকায় ভারতের হাইকমিশন ও বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় দেশের সব জেলা থেকে যোগ্য প্রার্থীদের বাছাই করে এই বৃত্তি দেয়া হয়। বৃত্তিপ্রাপ্ত স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা এককালীন ৫০ হাজার টাকা এবং উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা এককালীন ২০ হাজার টাকা পান।

২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে এবার মোট এক হাজার ৯২৫ জন শিক্ষার্থীকে এই বৃত্তি দেয়া হয়েছে। করোনার কারণে এ বছর বৃত্তির অর্থ অনলাইনে হস্তান্তর করা হয়।

ইত্তেফাক/আরএ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: