স্বর্ণের রেকর্ডভাঙ্গা দাম, প্রতি ভরিতে পড়বে প্রায় ৭৩ হাজার

এক মাসের ব্যবধানে আবারো বাড়লো স্বর্ণের দাম। সব মানের স্বর্ণ প্রতি ভরিতে ২৯১৬ টাকা করে বাড়ছে। করোনা ভাইরাসের মহামারীর মধ্যেই অলংকার তৈরির এ ধাতুর দাম আকাশ চুম্বী হয়ে গেছে।

এর আগে কখনো এতো বেশি দাম হয়নি। গ্রাহক যদি সবচেয়ে ভাল মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেটের এক ভরি ওজনের সোনার গহনা কিনতে যায় তাকে প্রায় ৭৩ হাজার টাকা ব্যয় করতে হবে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার কারণে দেশের বাজারেও দাম বেড়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)।

সমিতির সভাপতি দিলিপ কুমার আগারাওয়ালা ইত্তেফাককে বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে সবাই আতঙ্কে আছে। ভবিষ্যতে কী হবে কেউ জানে না। ব্যবসা বাণিজ্যে মন্দা, শেয়ারবাজারে ধস। এমন পরিস্থিতিতে বিনিয়োগ নিরাপদ বিনিয়োগের জায়গাও নেই। স্বর্ণকেই একমাত্র ভরসা মনে করছেন সবাই। এ কারণে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম বেড়েছে। তিনি বলেন, এত বেশি দাম কখনো হয়নি।

বাজুস নির্ধারিত নতুন মূল্য তালিকায় দেখা গেছে, সবচেয়ে ভাল মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেটের সোনা প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) বিক্রি হবে ৭২ হাজার ৭৮৩ টাকা দরে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ মানের সোনার ভরিপ্রতি বিক্রিমূল্য ছিল ৬৯ হাজার ৮৬৭ টাকা। অর্থাৎ এ মানেরসহ সব মানের স্বর্ণে প্রতি ভরিতে বাড়ছে ২ হাজার ৯১৬ টাকা।

পরবর্তী দাম নির্ধারণ না হওয়া পর্যন্ত ২১ ক্যারেটের সোনা ভরিপ্রতি বিক্রি হবে ৬৯ হাজার ৬৩৪ টাকা দরে। এ মানের প্রতি ভরি সোনার বিক্রিমূল্য ছিল ৬৬ হাজার ৭১৮ টাকা। ১৮ ক্যারেটের সোনা ভরিপ্রতি বিক্রি হবে ৬০ হাজার ৮৮৬ টাকা। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ মানের সোনার ভরিপ্রতি দাম ছিল ৫৭ হাজার ৯৭০ টাকা। আর সনাতন পদ্ধতির সোনার দামও ভতিপ্রতি ৫০ হাজার টাকা ছাড়িয়েছে। এ মানের স্বর্ণ ভরিপ্রতি বিক্রি হবে ৫০ হাজার ৫৬৩ টাকায়। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ মানের স্বর্ণের দাম ছিল ৪৭ হাজার ৫৮৯ টাকা ভরি। এদিকে রূপার দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। ২১ ক্যাডমিয়ামের প্রতি ভরি রুপার বিক্রিমূল্য ৯৩৩ টাকা।

ইত্তেফাক/ইউবি

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: