মারধর, মামলা অবশেষে ডিভোর্স

ঢাকা, ৩০ ডিসেম্বর – ঢাকাই সিনেমার চিত্রনায়িকা তমা মির্জাকে ডিভোর্স দিয়েছেন স্বামী হিশাম চিশতি। গত ৭ সেপ্টেম্বর আইনজীবীর মাধ্যমে স্ত্রীকে নোটিশ পাঠান। নিয়ম অনুযায়ী তিনমাস পর গত ৭ ডিসেম্বর তাদের আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ হয়েছে।

কানাডা প্রবাসী হিশাম চিশতির সঙ্গে পরিচয়ের ৭ মাসের মাথায় তাকে বিয়ে করেন এই চিত্রনায়িকা। ২০১৯ সালের ৯ মার্চ তাদের বাদগানের পর ৭ মে পারিবারিক আয়োজনে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। কিন্তু বছর না যেতেই মনমালিন্য শুরু হয়।

তাদের দাম্পত্য কলহ থানা-আদালত পর্যন্ত গড়ায়। স্বামী-স্ত্রী একে অপরের বিরুদ্ধে আনেন মারধরের অভিযোগ। এরপর দুজনই বিচ্ছেদের কথা জানিয়েছিলেন। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে নয়। বিচ্ছেদ না হলেও দীর্ঘ দিন ধরে স্বামী ছেড়ে আলাদা থাকছিলেন তমা মির্জা।

হিশাম বলেন, ‘তমাকে বিয়ের পর থেকেই মানসিক টর্চারে ছিলাম। নানা বিষয় নিয়ে ওর সঙ্গে ঝামেলা হয়েছে। সেসব মামলা পর্যন্ত গড়িয়েছে। আমি আর এসব সহ্য করতে পারছি না। আমার পরিবার আছে, পারিবারিক সম্মান আছে। সবকিছু বিবেচনা করে চলতি বছরের মে মাসের ৩ তারিখ সাক্ষীদের সামনে রেখে আপসনামা স্বাক্ষরের মাধ্যমে আমরা দুজনই সব মামলা উঠিয়ে নিই!’ সাংবাদিকরা ডিভোর্স নোটিশের বিষয়ে জানতে চাইলে তমা বলেন, তিনি কোনো নোটিশ পাননি।

এন এইচ, ৩০ ডিসেম্বর

মারধর, মামলা অবশেষে ডিভোর্স

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: