পিটের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের কারণ জানালেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি

সিনেমায় কাজ করতে গিয়ে একে অপরের প্রেমে পড়েন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও ব্র্যাড পিট। এরপর দীর্ঘ ১০ বছর প্রেমের পর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন এই তারকা জুটি। কিন্তু বিয়ের মাত্র দুই বছর পর বিচ্ছেদ হয় তাদের।

ভোগ ম্যাগাজিনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অ্যাঞ্জেলিনা জোলি বলেন, সন্তানদের মঙ্গলের জন্য বিবাহ বিচ্ছেদের পথ ধরতে হয়েছে। আমরা সন্তান এবং পরিবারের মঙ্গলের জন্যই আমি আলাদা হয়েছি। আর এটি একদম সঠিক সিদ্ধান্ত ছিলো।’

জোলি আরও বলেন, ‘বিচ্ছেদের পর থেকে অনেকেই আমার নীরবতার সুযোগ নিয়েছে। যা আমার সন্তানদের উপরও প্রভাব ফেলছে। মিডিয়াতে তাদের নিয়ে নানা ধরণের মিথ্যা তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। কিন্তু যারা এসব করছেন আমি তাদের মনে করিয়ে দিতে চাই, আমার সন্তানরা তাদের সত্যগুলো জানেন। তারা প্রত্যেকেই সাহসী এবং শক্তিশালী।’

হলিউড অভিনেতা ব্র্যাড পিটের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পর থেকে এই দম্পতির ছয় সন্তানই আছে অ্যাঞ্জেলিনা জোলির সঙ্গে। জোলি তার প্রথম সন্তান ম্যাডক্সকে দত্তক নিয়েছিলেন কম্বোডিয়া থেকে। দ্বিতীয় সন্তান প্যাক্সও দত্তক, ভিয়েতনামের। জোলি মা হন সিরিয়ায় জন্ম নেওয়া জাহরার। এরপর জোলি জন্ম দেন শিলোহ ও যমজ সন্তান নক্স আর ভিভিয়েনকে।

প্রসঙ্গত, ২০০৪ সালে ‘মি. অ্যান্ড মিসেস স্মিথ’ ছবির কাজ করতে গিয়ে একে অপরের প্রেমে পড়েন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও ব্র্যাড পিট। এরপর দীর্ঘ ১০ বছর মন দেওয়া-নেওয়ার পর ২০১৪ সালে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন এই তারকা জুটি। কিন্তু বিয়ের মাত্র দুই বছর পর অর্থাৎ ২০১৬ সালে বিচ্ছেদের পথে হাঁটেন তারা।

ইত্তেফাক/বিএএফ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: