সহকর্মী হারানোর বেদনায় ভাসছেন তারকারা

বাংলাদেশের প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সর্বত্র। অগণিত মানুষের শ্রদ্ধায় ও শোকে ভরে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। সংগীতের এই কিংবদন্তীর মৃত্যুতে সোশ্যাল মিডিয়ায় শোক প্রকাশ করেছেন তারকারাও।

কুমার বিশ্বজিৎ লিখেছেন, ‘এন্ড্রু কিশোরের মতো ক্ষণজন্মা শিল্পী যুগে যুগে আসে না। তার চলে যাওয়ায় আমাদের সংগীতাঙ্গনের যে ক্ষতি হয়েছে তা কোনদিনও পূরণ হওয়ার নয়। শুধু সহযাত্রীই নয়, বরং আমার হারালাম একজন ভাই যিনি আমাকে শাসন করেছেন যেমনটি, তেমনি আদরও। এই শোক সত্যি সত্যিই অসহনীয়। তার আত্মার শান্তি কামনা করি এবং পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করছি।’

কনকচাঁপা লিখেছেন, ‘বাংলাদেশের একজনই ‘এন্ড্রু কিশোর’। তিনি ছিলেন আছেন থাকবেন তার কর্মের মাঝে। হে গুণী, আপনার জন্য রইলো আমার আজীবনের শ্রদ্ধা।’

ফকির আলমগীর লিখেছেন, ‘অবশেষে মরণ ব্যাধি ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে, না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন আধুনিক বাংলা গানের কিংবদন্তী শিল্পী এন্ড্রু কিশোর। তার মৃত্যুতে উপমহাদেশে সংগীত ভুবনে যে শুন্যতার সৃষ্টি হল যা সহজে পূরণ হবার নয়। আমি তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করি।’

বাপ্পা মজুমদার লিখেছেন, ‘বিদায় এন্ড্রু দা…! বিদায় হে মহারাজ…!’

জয়া আহসান লিখেছেন, ‘এন্ড্রু কিশোর আমাদের দেশের সংগীত জগতের একটি অধ্যায়ের নাম। তাঁর হায়রে মানুষ রঙিন ফানুস, ডাক দিয়াছেন দয়াল আমারে, জীবনের গল্প আছে বাকি অল্প, আমার সারা দেহ খেয়ো গো মাটি, আমার বুকের মধ্যেখানে, ভেঙেছে পিঞ্জর মেলেছে ডানা, সবাই তো ভালোবাসা চায় প্রভৃতি গান আমাদের মনে গেঁথে থাকবে চিরদিন। যে শিল্পী ৮ বার জাতীয় পুরস্কারের সম্মানে ভূষিত তাঁকে নিয়ে যাই লিখবো তাই কম মনে হবে। শুধু এটুকুই বলতে পারি আমরা আজীবন আপনার অবদানের জন্য ঋণী হয়ে থাকবো। আপনি বেঁচে থাকবেন আপনার কাজে, আপনার গানে, আপনার সুরে এই দেশের সকল মানুষের মধ্যে।’

এন্ড্রু কিশোরের ছবির শেয়ার করে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস লিখেছেন, ‘রেস্ট ইন পিস।’

চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা লিখেছেন, ‘বিনম্র শ্রদ্ধা এন্ড্রু কিশোর দাদা।’

এন্ড্রু কিশোরের সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করে চিত্রনায়ক ও শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ লিখেন: ওরে এইনা ভুবন ছাড়তে হবে দুদিন আগে পরে। তবু একই সাথে রেখো আমায় একই মাটির ঘরে। আমি ওইনা ঘরে থাকতে একা পারবোনাকো পারবোনা। ভালো থাকবেন ওপারে প্রিয় শিল্পী। এন্ড্রু কিশোর। কি যে হারালাম।

সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এন্ড্রু কিশোর। শরীরে নানা ধরনের জটিলতা নিয়ে এন্ড্রু কিশোর অসুস্থ অবস্থায় গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে দেশ ছেড়েছিলেন। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর গত ১৮ সেপ্টেম্বর তাঁর শরীরে নন-হজকিন লিম্ফোমা নামের ব্লাড ক্যানসার ধরা পড়ে।

ইত্তেফাক/বিএএফ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: