তালেবানের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানের চার সেনা নিহত

ইসলামাবাদ, ৩১ ডিসেম্বর – তেহরিক-ই তালেবানের (টিটিপি) সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানের চার সেনা নিহত হয়েছে। শুক্রবার তালেবানের ডেরায় অভিযান চালানোর সময় এই ঘটনা ঘটে।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, চলতি মাসে তেহরিক-ই তালেবান যুদ্ধবিরতি সমাপ্ত ঘোষণার পর পাকিস্তান সেনাদের সঙ্গে টিটিপির এটি ভয়াবহতম সংঘর্ষ।

গত ৯ নভেম্বর পাকিস্তান সরকার তেহরিক-ই তালেবানের সঙ্গে এক মাসের অস্ত্রবিরতি চুক্তি করে। কিন্তু পাক সরকার প্রতিশ্রুতি পালন করেনি দাবি করে টিটিপি অস্ত্রবিরতি চুক্তি থেকে গত ১০ ডিসেম্বর সরে আসে। এর একদিন পর খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের তাঙ্ক জেলায় পাকিস্তানে এক পুলিশ সদস্যকে গুলি করে হত্যা করে তারা।

পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তাদের সেনারা আফগানিস্তানের কাছে তেহরিক-ই তালেবানের পূর্বের শক্ত ঘাঁটিতে অভিযান চালায়। প্রথম অভিযানটি চালানো হয় উত্তরপশ্চিম তাঙ্ক জেলায়। এখানে অভিযানে টিটিপির দুই সশস্ত্র যোদ্ধা নিহত হন।

অন্য অভিযানটি চালানো হয় উত্তর ওয়াজিরিস্তান জেলায়। সেখানে সশস্ত্র এক যোদ্ধাকে আটক করা হয়। এরপর টিটিপির অন্য সদস্যদের সঙ্গে সংঘর্ষে পাকিস্তানের চার সেনা নিহত হয়। অভিযানে বিপুল পরিমাণে অস্ত্র ও গোলাবারুদ জব্দ করা হয়েছে বলেও পাক সেনাবাহিনীর পক্ষে দাবি করা হয়েছে।

পাকিস্তানি তালেবান যারা তেহরিক-ই-তালেবান (টিটিপি) নামে পরিচিত। সশস্ত্র গোষ্ঠীটির আফগানিস্তানের তালেবান থেকে আলাদাভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে। বেশ কয়েক বছর ধরেই তারা পাকিস্তানে সক্রিয়। তারা মূলত পাকিস্তানের ক্ষমতা দখল করে সেখানে ইসলামি শরিয়া আইন চালু করতে চাইছে।

নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফজাইকে হত্যাচেষ্টার মাধ্যমে পশ্চিমা বিশ্বে পরিচিতি পায় টিটিপি। রয়টার্সের তথ্যমতে, টিটিপির একের পর এক আত্মঘাতী হামলা ও বোমা হামলায় এরই মধ্যে পাকিস্তানের কয়েক হাজার সামরিক-বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছেন।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/৩১ ডিসেম্বর ২০২১

তালেবানের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানের চার সেনা নিহত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: