কাসেম সোলাইমানি হত্যায় বাইডেন প্রশাসনও দায়ী: ইরান

তেহরান, ০১ জানুয়ারি – ইরান বলছে, কাসেম সোলাইমানি হত্যার জন্য বর্তমান বাইডেন প্রশাসনও দায়ী। দুই বছর আগে ইরাকের বিমানবন্দরের নিকট এক ড্রোন হামলায় ইরানের বিপ্লবী গার্ডসের এলিট ফোর্স কুদসের কমান্ডার কাসেম সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়। তার দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকীতে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এই কথা বলেছে।

বিবৃতিতে ইরান বলেছে, শীর্ষ কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যা করার জন্য আমেরিকার আন্তর্জাতিক দায় রয়েছে। সোলাইমানিকে হত্যা করার যে পদক্ষেপ ওয়াশিংটন নিয়েছে তা সন্দেহাতীতভাবে একটি ‘সন্ত্রাসী হামলা’।

তৎকালীন ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের নির্দেশে এই হামলা চালানো হয়। তবে ইরান বলছে, এ দায় এখন হোয়াইট হাউজের তথা বর্তমান বাইডেন প্রশাসনের।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক ও আইনি মানদণ্ডে এই অপরাধের জন্য নিশ্চিতভাবে মার্কিন সরকার দায়ী। শহীদ জেনারেল সোলাইমানি মধ্যপ্রাচ্যসহ গোটা বিশ্ব শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠার ইরানের মূলনীতি বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। তিনি যখন ইরাক ও সিরিয়ায় সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছিলেন তখন তাকে হত্যা করার মাধ্যমে আমেরিকা সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধের ব্যাপারে নিজের দ্বৈত চরিত্র উন্মোচন করে দিয়েছে।

২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে ড্রোন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়ে মার্কিন সেনারা হত্যা করে। ওই হামলায় ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিটের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড আবু মাহদি আল মুহান্দিসও নিহত হন।

সূত্র : যুগান্তর
এন এইচ, ০১ জানুয়ারি

কাসেম সোলাইমানি হত্যায় বাইডেন প্রশাসনও দায়ী: ইরান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: