সোলাইমানি হত্যায় ট্রাম্পের বিচার না হলে প্রতিশোধ: রাইসি

তেহরান, ০৪ জানুয়ারি – ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি জেনারেল কাশেম সোলাইমানি হত্যার ঘটনায় সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিচার না হলে প্রতিশোধ নেওয়ার অঙ্গীকার করেছেন।

মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানায়।

জেনারেল সোলাইমানি ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের কুদস বাহিনীর কমান্ডার ছিলেন। ২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি ইরাকের বাগদাদ বিমানবন্দরে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন তিনি।

তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্দেশেই সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়। ট্রাম্প প্রকাশ্যেই তা স্বীকার করেন।

সোমবার ছিল সোলাইমানির দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। ইরান ও তার মিত্ররা অত্যন্ত ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে তার মৃত্যুবার্ষিকী পালন করেছে।

সোলাইমানির মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে এক ভাষণে ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি বলেন, আগ্রাসনকারী ও মূল হত্যাকারী যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওসহ অন্যান্য অপরাধীদের অবশ্যই বিচার ও শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে। অন্যথায় নিঃসন্দেহে মুসলিম জাতির হাতা থেকে প্রতিশোধের হাত বেরিয়ে আসবে।

সোলাইমানিকে হত্যার পরপরই ইরাকে অবস্থিত মার্কিন সেনাদের অবস্থান লক্ষ করে একাধিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে ইরান। এতে কেউ নিহত হননি, তবে যুক্তরাষ্ট্রের কিছু সেনা ট্রমায় আক্রান্ত হন।

সোলাইমানির দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকীর দিন সোমবার দুটি সশস্ত্র ড্রোনের মাধ্যমে বাগদাদে মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের অবস্থান লক্ষ্য করে হামলার চেষ্টা করে। তবে হামলার আগেই ড্রোন দুটিকে ভূপাতিত করার কথা জানিয়েছে জোট।

একই দিন ইসরাইলের গণমাধ্যম জেরুজালেম পোস্টে সাইবার হামলা চালায় ইরানের হ্যাকাররা। জেরুজালেম পোস্টের মূল পাতায় সংবাদের পরিবর্তে একটি ইলাস্ট্রেশন রাখে হ্যাকাররা। সেখানে ইংরেজি ও হিব্রু ভাষায় লেখা ছিল, ‘আমরা তোমাদের ততটা কাছাকাছি রয়েছি, যতটা তোমরা কল্পনাও করতে পারো না।’

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/০৪ জানুয়ারি ২০২২

সোলাইমানি হত্যায় ট্রাম্পের বিচার না হলে প্রতিশোধ: রাইসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: