আইসোলেশনের মেয়াদ কমিয়ে অর্ধেক করলো ভারত

নয়াদিল্লী, ০৫ জানুয়ারি – ইউরোপ-আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশের পথে হেঁটে এবার আইসোলেশনের মেয়াদ কমিয়েছে ভারত। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নতুন নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, মৃদু উপসর্গ থাকলে ১৪ দিনের পরিবর্তে এবার থেকে ৭ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

আক্রান্ত ব্যক্তির পরপর তিনদিন যদি জ্বর না আসে তাহলে আইসোলেশন থেকে মুক্তি পেতে পারেন বলেও নির্দেশিকায় উল্লেখ করা হয়েছে।

দুই বছর আগে সংক্রমণের শুরুতে ভারতে করোনা রোগীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনের নির্দেশ দিয়েছিল ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর)। তবে, নতুন নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, মৃদু উপসর্গ কিংবা উপসর্গহীন হলে ৭ দিন আইসোলেশনে থাকলেই হবে। সেই সঙ্গে দেখতে হবে পরপর তিনদিন যেন জ্বর না আসে।

পাশাপাশি বলা হয়েছে, বাড়িতে আইসোলেশনে থাকলে মাস্ক পরতে হবে। এছাড়া সংক্রমিত ব্যক্তির ব্যবহৃত থালা-বাসন ইত্যাদি আলাদা করে রাখতে হবে। এ ধরনের উপসর্গহীনতা কিংবা মৃদু উপসর্গের ক্ষেত্রে আইসোলেশনে থাকার পরে নতুন করে পরীক্ষা করানো জরুরি নয়। তবে কেউ চাইলে করিয়ে নিতেই পারেন।

এর আগে আইসিএমআর’র কর্মকর্তা ডা. সমীরন পান্ডা জানিয়েছিলেন, আইসোলেশনের সময় কমিয়ে এক সপ্তাহ করার পরিকল্পনা রয়েছে। কারণ সংক্রমণ দ্রুত ছড়ালেও ভাইরাসের সংক্রমণ ক্ষমতা ক্রমশ কমছে।

এদিকে ভারতে ওমিক্রন করোনাভাইরাসে একজনের মৃত্যু হয়েছে। ওই ব্যক্তি গত সপ্তাহে মারা যান এবং এর আগেই তিনি দু’বার করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ শনাক্ত হয়েছিলেন। তবুও এটিকে ওমিক্রন সম্পর্কিত মৃত্যু বলে ধরা হচ্ছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) ভারতীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ৭৩ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি রাজস্থানের বাসিন্দা। গত ৩১ ডিসেম্বর রাজ্যের উদয়পুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তার।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ০৫ জানুয়ারি

আইসোলেশনের মেয়াদ কমিয়ে অর্ধেক করলো ভারত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: