ভয়ার্ত বেবুন শাবককে সিংহের আদর

this is caption

বনের প্রাণীদের মধ্যে সম্পর্ক, যোগাযোগ, খুনসুটি, দুষ্টুমি কিংবা প্রভাবের ব্যাপারগুলো একেবারে অন্যরকম। মানুষের মধ্যে যেমন এ বিষয়গুলো আছে, তেমনি বনের প্রাণীদের মধ্যেও তা আছে। তবে তার পেছনে, উদ্দেশ্য, বৈশিষ্ট্য এবং ধরন হয়ত একেবারে প্রাকৃতিক। কিন্তু মানুষের কাছে তা কখনো কখনো মজাদারও হয়ে উঠতে পারে।

ধরা যাক, বানর আর সিংহের মধ্যে সম্পর্কটা আসলে কী? সেটা হয়ত ব্যাখ্যা দিয়ে কারো বুঝিয়ে দেবার দরকার হবে না। সিংহের মুখোমুখি হলে যে বানরের কী করুণ অবস্থা হবে? অথবা একটি শিশু বেবুন আর একটি সিংহের মধ্যে আচরণটা কেমন হতে পারে? আমরা হয়ত ভাবব খুব বিপজ্জনক অবস্থা হবে বেবুন শিশুটির। কিন্তু উল্টোও তো হতে পারে।

ফটোগ্রাফার ইভান শিলার এবং লিজা হোলজাওয়ার্থের ক্যামেরায় বেবুন আর সিংহের এমনই একটি ঘটনা ধরা পড়েছে।

তারা দুজন বোতসোয়ানার উত্তরে স্লিন্ডায় বনাঞ্চলে ঘুরছিলেন ক্যামেরা নিয়ে। হঠাৎ করে দেখা গেল এক ঝাঁক বড় আকারের বেবুনের একটি দল আসছিল।

প্রায় ৩০ থেকে ৪০টি বড় আকারের বেবুন। এদের মুখগুলো দেখতে অনেকটা কুকুরের মুখের মতো।

বেবুনগুলো খুব চ্যাচামেচি করছে। চিৎকার করছে। হঠাৎ করে তাদের এই আওয়াজটা একটু বেড়ে গেল। গম্ভীর স্বরে আওয়াজ দিচ্ছিল। এক গাছ থেকে আরেক গাছে হামাগুড়ি দিয়ে লাফ দিয়ে দিয়ে দৌড়ে যাচ্ছে।

তবে খুব সন্তর্পনে যাচ্ছে। কিন্তু আকস্মিকভাবে বেবুনগুলোর মতিগতি এমন গম্ভীর হয়ে গেল কেন?

লিজা জানান, আসলে ওরা কিছু একটা টের পাচ্ছিল। লিজার মতে বেবুনের সতর্কানুভূতি খুবই তীক্ষ্ণ। খুব দ্রুত এরা শিকার সম্পর্কে টের পেয়ে যায়।

একটু পরেই সেই ঘটনা বুঝা গেল। ওদের হঠাত এভাবে গম্ভীরস্বরে আওয়াজ দেয়ার কারণটা আসলে দুটি সিংহ। বড় বড় দুটি সিংহ লম্বা লম্বা ঘাসের ভেতর দিয়ে পা টিপে টিপে আসছিল। এবং খুব দ্রুত বেবুন যে গাছগুলোতে আছে সেখানে চলে আসে।

তার সাথে পরে আরো দুটি সিংহ যুক্ত হল।

লিজা বলেন, এসময় বেবুনগুলো কুচি কুচি হয়ে যাচ্ছিল যেন, আর সিংহগুলোর কণ্ঠ থেকে কেমন একটা অদ্ভূত আওয়াজ বের হয়ে আসছিল।

তবে মজার ঘটনা ঘটে গেল একটু পরই। দেখা গেল একটি বেবুন সাহস করে দল থেকে ছুটে নেমে গেল একটি মরা গাছ বেয়ে। ছোট্ট সেই বেবুনটি দৌড়াতে খুব চেষ্টা করছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সিংহের চোয়ালে আটকে গেল। তবে শিশু বেবুনটিকে পেয়ে সিংহটি কি ভেবেছিল এটা ওরই সন্তান! খুব আদরে চুমু খেয়ে সিংহটি একদম বুকের ভেতরে জড়িয়ে নিল বাচ্চাটিকে।

শেষ পর্যন্ত সিংহের এই আদর ওরে কাছে টানতে পারেনি। হঠাৎ মওকা পেয়ে ফসকে বের হয়ে যায় পিচ্চি বেবুনটি। এক দৌড়ে মায়ের কোলে ঝাপিয়ে পড়ে। তারপর তার মা ওকে কামড় দিয়ে ধরে গাছে উঠে যায়। আর সিংহগুলোও ধাওয়া করে। কিন্তু ততক্ষণে নাগালের বহু দূরে চলে মা বেবুন আর তার বাচ্চা।

শাতৈ/রর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: