মার্কিন স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ

this is caption

স্বাস্থ্য বিষয়ক সংস্কার আইনের কারণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও মানবসেবা বিষয়ক মন্ত্রী ক্যাথলিন সিবালিয়াস পদত্যাগ করেছেন।

বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসের একজন কর্মকর্তা এ কথা জানান। রয়টার্স।

ধারণা করা হচ্ছে, প্রেসিডেন্ট ওবামার বহুল আলোচিত স্বাস্থ্য বিষয়ক আইনের কারণে যে বিশৃঙ্খলা হয়েছিল তার কারণেই পদত্যাগ করেছেন সিবালিয়াস।

২০০৯ সালে বারাক ওবামা প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। সে সময় থেকেই সিবালিয়াস যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছিলেন।

ওবামার স্বাস্থ্যবিষয়ক আইনটি হল ‘ওবামাকেয়ার’ বা অ্যাফোর্ডেবল কেয়ার অ্যাক্ট হল প্যাশেন্ট প্রোটেকশন অ্যান্ড অ্যাফোর্ডেবল কেয়ার অ্যাক্ট।

২০১০ সালের ২৩ শে মার্চ প্রেসিডেন্ট ওবামা কংগ্রেস ও সিনেটে অুমোদিত হওয়ার পর তাতে স্বাক্ষর করেন ওবামা। এর মধ্য দিয়ে বিলটি আইনে পরিণত হয়। পরবর্তী সময়ে এটি‘ওবামা কেয়ার’ নামে পরিচিত হয়ে ওঠে।

আইনটি অনুযায়ী প্রশাসন আমেরিকানদের স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ে অনেক নতুন সুযোগ-সুবিধা, অধিকার, এবং নিরাপত্তা প্রদান করবে।

এবং তাতে ফেডারেল মার্কেট প্লেস থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্টেট এর লোকজন যাতে হেল্থ ইনসিওরেন্স কিনতে পারে বা এতে অন্তর্ভুক্ত হতে পারে তার ব্যবস্থা রাখা, প্রয়োজন অনুসারে প্রতিটা অঙ্গরাজ্যের বাসিন্দাদের জন্য নিজস্ব ব্যবস্থা রাখবে।

কম আয়ের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা সহজলভ্য করতে বিলে সব আমেরিকানকে স্বাস্থ্যবীমা করার বাধ্যবাধকতা রাখা হয়েছে। এবং তা করতে ব্যর্থ হলে জরিমানা করার প্রস্তাব রাখা হয়েছে।

আইনটি নিয়ে ওবামা প্রশাসন বহু বিতর্ক হয়।

২০১০সালে মার্কিন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে বিলটি অনুমোদিত হয়।

বিলটিতে দেশটির সর্বোচ্চ আদালতও সমর্থন জানালেও রিপাবলিকানরা তখন এ বিলের বিরোধিতা করেছিল।

তাদের বক্তব্য ছিল বিলটিতে উল্লেখিত বাধ্যবাধকতা আরোপ মার্কিন সংবিধান অনুযায়ী বেআইনি। অবশ্য সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, বীমা করার বাধ্যবাধকতা একধরনের কর। সুতরাং এটা অসাংবিধানিক নয়।

যুক্তরাষ্ট্রের মোট জনসংখ্যার ১৬ দশমিক ৩ শতাংশ বা প্রায় ৫ কোটি মানুষের স্বাস্থ্যবীমা নেই।

শাতৈ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: