সেই হাতির মৃত্যুতে নতুন তথ্য, গ্রেফতার ১

সম্প্রতি ভারতে এক অন্তঃসত্ত্বা হাতিকে হত্যার প্রতিবাদে চারদিকে চলছে সমালোচনা ঝড়। হাতিটি মারা যাওয়ার পরই অভিযোগ ওঠে বাজির বিস্ফোরক ভর্তি আনারস খেয়ে মৃত্যু হয়েছে।

তারপরই তদন্তে নামে প্রশাসন। এতে বেড়িয়ে আসে নতুন তথ্য। বলা হচ্ছে, আনারস নয়, বাজিভর্তি নারকেল খেয়েছিল ঐ হাতি। কেরালা রাজ্যে পালাক্কড় জেলায় এ ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার টুইট মুখ্যমন্ত্রী পিনরাই বিজয়ন জানান, এ ঘটনার তদন্ত করে বিচার করা হবে।

তদন্তে নামে প্রশাসন। এনডিটিভির খবর এই মামলায় প্রথম আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার নাম উইলসন, বয়স ৪০, তিনি একজন রাবার চাষি। মামলার অপর দুই সন্দেহভাজন এখনো পলাতক।

মান্নারকড় বিভাগীয় বন কর্মকর্তা সুনীল কুমার এনডিটিভিকে বলেন, ‘এই মামলায় প্রথম আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কর্মকর্তারা প্রমাণ সংগ্রহের অংশ হিসেবে ঐ ব্যক্তিকে সেই জায়গায় নিয়ে গিয়েছিলেন যেখানে তিনি বিস্ফোরক তৈরিতে সহায়তা করতেন।’

বন কর্মকর্তা আশিক আলি ইউ বলেন, ‘তদন্ত ও প্রমাণ সংগ্রহের অংশ হিসেবে ঐ ব্যক্তিকে সেই জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল যেখানে তিনি আরও দুজনকে বাজি তৈরিতে সাহায্য করতেন।’

গ্রেফতার হওয়া ৪০ বছর বয়সী উইলসন একজন রবার চাষি। এ মামলায় অপর দুই সন্দেহভাজন এখনো পলাতক।

স্থানীয়ভাবে তৈরি হয় এসব বিস্ফোরক। যা ফলের মধ্যে বা পশুর চর্বিতে ভরে দেন স্থানীয়রা। বুনো প্রাণীকে ভয় দেখানোর জন্য এবং ফসল রক্ষার জন্য এমনটি করা হয়।

বন কর্মকর্তারা জানান, হাতিটি নারকেল ভেঙে বিস্ফোরক পদার্থসহ একটি অংশ খেয়ে ফেলেছিল। এতে হাতির মুখ ক্ষতবিক্ষত হয়।

হাতিটি মুখের গুরুতর জখম নিয়ে গ্রামে ঘুরে বেড়ায়। কিন্তু কারো ক্ষতি করেনি। একপর্যায়ে যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে হয়ত নদীতে গিয়ে শুঁড় ডুবিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে। পালাক্কাড়ের ভেলিয়ার নদীতেই দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে মারা যায় সে। পানি বা কোনও খাবার খেতে না পেরে দুর্বল হয়ে পড়েছিল সে।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: