দাস ব্যবসায়ীর সবচেয়ে প্রাচীন মূর্তি ভেঙে সাগরে নিক্ষেপ

যুক্তরাজ্যে ১৭তম শতাব্দীর দাস ব্যবসায়ী অ্যাডওয়ার্ড কোলস্টোনের মূর্তি ভেঙে সাগরে ফেলে দিয়েছে বিক্ষোভকারীরা।

রবিবার রাতে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভকারীরা মূর্তিটি দড়ি দিয়ে টেনে নিচে নামিয়ে আনে। এরপর মূর্তিটিকে লাথি দিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন আন্দোলনকারীরা।

১৮৯৫ সাল থেকে অ্যাডওয়ার্ড কোলস্টোনের মূর্তিটি ব্রিস্টল শহরে দাঁড়িয়েছিল। মূর্তি ভাঙার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

মূর্তি ভাঙায় অনেকে সন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন। তবে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনসহ দেশটির শীর্ষস্থানীয় কিছু ব্যক্তি এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন।

যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব প্রীতি প্যাটেল বলেন, ‘যেভাবে এই মূর্তিটি নামানো হয়েছে তা অপমানজনক’।

আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ থেকে নারী ও শিশুসহ ৮০ হাজার মানুষকে ব্রিটেনে এনে কৃতদাস হিসেবে বিক্রি করার অভিযোগ আছে অ্যাডওয়ার্ড কোলস্টোনের বিরুদ্ধে।

উল্লেখ্য, ২৫ মে মিনেয়াপোলিসে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের ঘারে হাঁটু দিয়ে চেপে ধরে শ্বাসরোধে হত্যা করেন পুলিশ অফিসার শাওভিন। সঙ্গে তার আরো তিন সহকর্মীও ছিলেন।

এরপরই বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে যুক্তরাষ্ট্র। সেই বিক্ষোভের আগুন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ে।

তারই ধারাবাহিকতায় যুক্তরাজ্যের লন্ডন, ব্রিস্টল, নটিংহ্যাম ও ম্যানচেস্টারসহ বড় বড় শহরগুলোতে বিক্ষোভ হয়েছে। খবর: সিএনএন

ইত্তেফাক/জেডএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: