করোনা: যুক্তরাষ্ট্রে দুই মাসে সর্বনিম্ন মৃত্যু 

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৪৫০ জন প্রাণ হারিয়েছে। প্রতিদিনের হিসাবে বিগত প্রায় দুই মাসের মধ্যে দেশটিতে মৃতের এ সংখ্যা সর্বনিম্ন। সোমবার জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ পরিসংখ্যান থেকে এ তথ্য জানা যায়।

বাল্টিমোর ভিত্তিক ওই প্রতিষ্ঠানের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এ নিয়ে দেশটিতে কোভিড-১৯ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে মোট ১ লাখ ১০ হাজার ৯৩২ জনে দাঁড়ালো। সেইসঙ্গে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৯ লাখ ৫৬ হাজার ৫২৭ জনে দাঁড়িয়েছে।

কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের দিক থেকে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। ফলে দেশটিতে মৃতের ও আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্বের অন্য যেকোন দেশের তুলনায় অনেক বেশি।

তবে ফ্রান্স, ইতালি ও স্পেনসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশের তুলনায় যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মৃত্যু হার কম।

গত মার্চ মাসের শেষের দিকে যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে প্রাত্যহিক মৃতের সংখ্যা প্রথমবারের মতো ৫শ’ ছাড়াতে দেখা যায়। মধ্য এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ ভাইরাসে একদিনে মৃতের সংখ্য ৩ হাজার ছাড়িয়ে যায়।

গত দুই সপ্তাহ ধরে করোনাভাইরাসে প্রতিদিনের হিসাবে মৃতের সংখ্যা হ্রাস পেয়ে কয়েকদিন ১ হাজারের নিচে নেমে আসতে দেখা যায়। তবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির প্রবণতা প্রায় একই রকম রয়েছে। এক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে প্রতিদিন প্রায় ২০ হাজার মানুষ কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে।

ম্যাসাচুসেটস ইউনিভার্সিটির গবেষকদের মতে, ২৭ জুন নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে প্রায় ১ লাখ ২৭ হাজারে দাঁড়াতে পারে । মহামারি সংক্রান্ত ৯ টি মডেল থেকে তারা দেশটিতে করোনায় মৃত্যুর এ চূড়ান্ত ধারণা দেন।

যুক্তরাষ্ট্রে এ মহামারি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার গতি মধ্য এপ্রিলের পিকের তুলনায় কিছুটা কমে আসলেও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা ভাইরাসটি ছড়ানো নিয়ে এখনো উদ্বিগ্ন।

তারা বলছেন, গত সপ্তাহে ছড়িয়ে পড়া বর্ণবাদবিরোধী ব্যাপক বিক্ষোভের কারণে আগামী সপ্তাহগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা নতুন করে আরো অনেক বেড়ে যেতে পারে। এএফপি।

ইত্তেফাক/এসআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: