করোনার চায়নিজ ভ্যাকসিন উৎপাদন করবে ব্রাজিল

ব্রাজিলের সাও পাওলো রাজ্যে করোনা ভাইরাসের চায়নিজ ভ্যাকসিন উৎপাদন করা হবে। বেইজিংয়ের সিনোভ্যাক বায়োটেকের সঙ্গে এই ব্যাপারে একটি চুক্তি সম্পাদনের কথা কর্মকর্তারা বৃহস্পতিবার ঘোষণা করেন।

এ রাজ্যে আগামী মাসে ৯ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের অংশগ্রহণে এই ভ্যাকসিনের পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যার দিক থেকে ব্রাজিল বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ক্ষতিগ্রস্ত দেশের নামের তালিকায় উঠে এসেছে। দেশটিতে কোভিড-১৯ ভাইরাসে ৭ লাখ ৭০ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে এবং মৃতের সংখ্যা প্রায় ৪০ হাজারে ছাড়িয়েছে।

সাও পাওলোর গভর্নর জোয়াও ডোরিয়া এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সিনোভ্যাক বায়োটেকের সঙ্গে ব্রাজিলের শীর্ষ স্থানীয় গবেষণা কেন্দ্র বুটানটান ইনস্টিটিউট প্রযুক্তি হস্তান্তর চুক্তি করেছে।

ডোরিয়া জানান, জরিপে দেখান যায়, পরীক্ষা-নিরীক্ষায় সঠিক প্রমাণিত হলে ‘২০২১ সালের জুন নাগাদ ভ্যাকসিনটির বিতরণ করা হতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘এই চুক্তির আওতায় আমরা ব্যাপক হারে এ ভ্যাকসিন উৎপাদনের এবং ব্রাজিলের কোটি কোটি মানুষকে করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক দেয়ার সুযোগ পাবো।’

এক মাস আগে সিনোভ্যাক বায়োটেক জানায়, তারা এ ভ্যাকসিনের ১০ কোটি ডোজ উৎপাদনে প্রস্তুত রয়েছে। ভ্যাকসিনটির বাণিজ্যিক নাম করোনাভ্যাক। ভ্যাকসিন তৈরীর ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চালানোর অনুমোদন পাওয়া চীনের চারটি ল্যাবরেটরির একটি হচ্ছে সিনোভ্যাক বায়োটেক।

ভ্যাকসিনটির তৃতীয় ও চূড়ান্ত ধাপের পরীক্ষায় ব্রাজিলের সাও পাওলোতে ৯ হাজার স্বেচ্ছাসেবককে এ টিকা দেয়া হবে যা মধ্য জুলাই থেকে শুরু হতে যাচ্ছে। এএফপি।

ইত্তেফাক/এসআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: