ভারতকে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবে না চীন!

লাদাখ সীমান্ত নিয়ে ভারত-চীনের উত্তেজনা নিয়ে এবার বিশেষ বার্তা দিলেন নয়দিল্লিতে নবনিযুক্ত চাইনিজ রাষ্ট্রদূত সুন ওয়েডং। তিনি বলেন, চিন ও ভারত পরস্পরের প্রতিদ্বন্দ্বী নয়, সহযোগী। শুক্রবার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সুস্থিতির বার্তা দিল ভারতে নিযুক্ত চীন রাষ্ট্রদূত।

ইউটিউবে দেওয়া এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, সীমান্ত সমস্যার স্থায়ী যুক্তিগ্রাহ্য সমাধান না হওয়া পর্যন্ত শান্তি ও সুস্থিতি বজায় রাখা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে সংঘাত এড়িয়ে ধারাবাহিক আলোচনার মাধ্যমেই চীন এবং ভারতকে এগোতে হবে।

চীনের রাষ্ট্রদূত বলেন, সীমান্তে বিরোধের ছায়া দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও আর্থিক লেনদেনের উপর পড়লে তার পরিণাম দুদেশের জন্যই খারাপ হবে। এতে দুই দেশের উন্নয়নই ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

সুন আরও বলেন, মেড ইন চায়না পণ্যে শুল্ক বহির্ভূত প্রতিবন্ধকতা এবং বিধিনিষেধ আরোপ করা ঠিক হবে না। এ ক্ষেত্রে চীনা উৎপাদক এবং ভারতীয় ভোক্তা, দুপক্ষই ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

জানা যায়, লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীনের সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ ভারতীয় সেনার মৃত্যু হয়। এরপরেই চীনের টেলিকম ও বিদ্যুৎ সরঞ্জাম আমদানিতে বিধিনিষেধ আরোপ করে নয়াদিল্লি। নিষিদ্ধ করা হয় টিকটক-সহ ৫৯টি চীনা অ্যাপ।

আরও পড়ুন: ভারতে করোনায় মৃতদের ৮৫ শতাংশের বয়স ৪৫ এর বেশি!

১৮ মিনিটের ওই ভিডিও বার্তায় পারস্পারিক আস্থা এবং বিশ্বাস ফিরিয়ে আনারও আহ্বান জানিয়ে চীন রাষ্ট্রদূত বলেন, পরস্পরকে সম্মান দেওয়া এবং মূল স্বার্থগুলির প্রতি নজর দিলেই ভারত-চীন সম্পর্কে নতুন মাত্রা আসবে।

ইত্তেফাক/আরআই

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: