করোনার মধ্যে চীনে প্লেগে প্রথম মৃত্যু, সর্তকতা জারি

করোনা মহামারির মধ্যে এবার চীনে প্লেগ রোগে মৃত্যুর ঘটনা ঘটলো। এই রোগ মহামারি হিসেবে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় সর্তকতা জারি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দেশটির জাতীয় জুনোটিক ডিজিজ জানায়, মঙ্গোলিয়া অঞ্চলে বিউবোনিক প্লেগে আক্রান্ত হয়ে ১৫ বছর বয়সী এক কিশোর মারা যায়। প্লেগে এটাই প্রথম মৃত্যু।

ইঁদুর জাতীয় এক ধরণের প্রাণীর মাংস খাওয়ার তিন দিন পর তার মৃত্যু হয়।

ওই কিশোর চীন সীমান্তবর্তী মঙ্গোলিয়া প্রদেশের গোভি আলতাইয়ে বসবাস করতো। মৃত্যুর আগে তার সঙ্গে দেখা করেছে এমন প্রায় ১২ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিউবোনিক প্লেগের সংক্রমণ রোধে মঙ্গোলিয়ার ৫টি জেলা লকডাউন করে রাখা হয়েছে।

চলতি মাসের শুরুতে স্থানীয় এক কৃষক প্লেগে সংক্রামিত হন। এরপর থেকেই মঙ্গোলিয়া মারাত্মক হুমকির মুখে পড়ে। ফলে আশঙ্কা করা হচ্ছে এটি চীন জুড়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে।

এর আগে ১৪তম শতাব্দীতে বিউবোনিক প্লেগে আক্রান্ত হয়ে ২০০ মিলিয়ন মানুষ মারা গিয়েছিল।

এই রোগটি একটি ব্যাকটিরিয়া সংক্রমণ থেকে হয়। যা প্রাণিদের থেকে ছড়ায়। যথাযথ চিকিৎসা না পেলে আক্রান্তের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই প্রাপ্তবয়স্ক একজনকে মেরে ফেলতে পারে বিউবোনিক প্লেগ।

মঙ্গোলিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, প্লেগের বিস্তার চীন ও রাশিয়ার জন্য উদ্বেগের বিষয়। তবে তারা এর সংক্রমণ রোধে উচ্চ সতর্কতা জারি করেছে।

সিনিয়র কর্মকর্তা ডরজ নরঞ্জেরেল জানান, ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে ইঁদুর জাতীয় প্রাণী শিকার ও এগুলোর মাংস খাওয়া থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। সূত্র: এক্সপ্রেস উইকে

ইত্তেফাক/জেডএইচ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: