মহামারি আরো ১৩ কোটি মানুষকে অনাহারে ফেলতে পারে :জাতিসংঘ

করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে বছরের শেষ নাগাদ বিশ্বজুড়ে আরো ১৩ কোটি ২০ লাখ মানুষ দীর্ঘমেয়াদি অনাহারের মুখে পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ। সোমবার প্রকাশিত এক নতুন প্রতিবেদনে এমন আশঙ্কা জানিয়েছে সংস্থাটি। পরিস্থিতি মোকাবিলায় জনগণের জন্য পুষ্টিকর মানসম্মত খাবার নিশ্চিত করতে নীতিমালা প্রণয়ন বিনিয়োগের জন্য বিভিন্ন দেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

জাতিসংঘেরস্টেট অব ফুড সিকিউরিটি অ্যান্ড নিউট্রিশন ইন দ্য ওয়ার্ল্ড ২০২০শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছর ২০০ কোটি মানুষ খাদ্য সংশ্লিষ্ট নিরাপত্তাহীনতায় ভুগেছে। এর মধ্যে ৭৪ কোটি ৬০ লাখ মানুষ তীব্র খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে আছে। জাতিসংঘ সতর্ক বলেছে, সেই সংখ্যাটা এখন আরো বাড়ছে। প্রবণতা চলতে থাকলে ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্য নির্মূলের জন্য জাতিসংঘ যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে, তা হুমকির মুখে পড়বে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনা পরিস্থিতির আগে থেকেই বিশ্বে খাদ্যজনিত নিরাপত্তাহীনতা দেখা দিয়েছে। বেশ কয়েক দশক ধরে কমতে থাকলেও ২০১৪ সাল থেকে এই শ্রেণির মানুষের সংখ্যা বেড়েছে। তবে ক্ষুধার বিরুদ্ধে যুদ্ধ জয়ের পথে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করেছে কোভিড১৯, যা খাদ্যপ্রাপ্তির আশাকে ঝুঁকিতে ফেলেছে। খাদ্য জোগানের অপ্রতুলতা বা সীমাবদ্ধতা আরো জোরালো হয়ে উঠছে।

জাতিসংঘের প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, বিশ্বের বেশির ভাগ দরিদ্র মানুষই ন্যূনতম পুষ্টিকর খাদ্যটুকু কেনার সামর্থ্য রাখে না। পুষ্টিকর খাদ্যের দাম সবার সাধ্যের মধ্যে রাখার জন্য বিভিন্ন কর্মসূচিতে বিনিয়োগের পাশাপাশি কৃষি উত্পাদনের ক্ষেত্রে কর পরিহার করতে বিভিন্ন দেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। আল জাজিরা

ইত্তেফাক/এসি

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: