মানবদেহে করোনা ভ্যাকসিন পরীক্ষার প্রথম ধাপে সফল মডার্না

মানবদেহে করোনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষার প্রথম ধাপে সফলতা পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ কোম্পানি মডার্না। কোম্পানিটি দাবি করছে, ভ্যাকসিনটি নিরাপদ এবং এটি নেয়া ৪৫ জন স্বেচ্ছাসেবীর দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়েছে।

নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিনে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে মডার্নার গবেষকরা জানান, স্বেচ্ছাসেবী যারা ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ নিয়েছিলেন তাদের দেহে উচ্চ মাত্রার ভাইরাসরোধক অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনা থেকে সুস্থ হওয়া রোগীদের দেহে গড়ে যে পরিমাণ অ্যান্টিবডি পাওয়া যায় এর চেয়ে ভ্যাকসিনের মাধ্যমে আরো বেশি অ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে। এছাড়া স্বেচ্ছাসেবকদের মধ্যেও কোনো রকম পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। তবে অর্ধেকের বেশি স্বেচ্ছাসেবক দাবি করেছেন যে ভ্যাকসিন নেওয়ার পর তারা অবসাদ, মাথা ব্যাথা, শরীর ব্যাথা অনুভব করেছেন। এ নিয়ে গবেষকরা বলছেন যারা বেশি মাত্রায় ডোজ নিয়েছেন তারাই এমন সমস্যায় ভুগেছেন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রাণঘাতী করোনা প্রতিরোধে ভ্যাকসিনের কোনো বিকল্প নেই। প্রাণঘাতী ভাইরাসটিতে এ পর্যন্ত বিশ্বে মারা গেছেন প্রায় ৫ লাখ ৭৫ হাজার মানুষ।

মডার্না-ই প্রথম, যারা করোনার সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের মানব শরীরে পরীক্ষা শুরু করেছিল গত ১৬ মার্চ৷ ৬৬ দিন পরে ওই ভ্যাকসিনের প্রথম পর্যায়ের হিউম্যান ট্রায়ালের ফলাফল প্রকাশিত হলো৷

জানা গেছে, মডার্না মানবদেহে তিন ধাপে করোনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষা চালাবে। প্রথম ধাপের পরীক্ষার ফলাফল দুর্দান্ত এলেও এখনো দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ধাপের ফলাফল বাকি রয়েছে। গত মে মাসে মানবদেহে করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষা চালায় মডার্না। যেটির ফলাফল এখনো বের হয়নি। আর আগামী ২৭ জুলাই থেকে মানবদেহে করোনা ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা চালাবে মডার্না। কোম্পানিটির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, তৃতীয় ধাপে ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের ওপর পরীক্ষা চালানো হবে।

এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউচি বলেন, মানব শরীরে ট্রায়ালের প্রথম পর্যায়ে ভালো খবর এলো৷ যদি আপনার ভ্যাকসিন সাধারণ সংক্রমণে ভালো সাড়া দেয়, তা হলে আপনি জয়ী৷

হিউম্যান ট্রায়ালের প্রথম পর্যায়ের সাফল্য পেতেই মডার্নার শেয়ারদর একলাফে ১৫ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে৷ মডার্নার এই ভ্যাকসিন প্রস্তুতিতে মার্কিন সরকার বিরাট অঙ্কের অর্থ খরচ করছে৷

ইত্তেফাক/এআর

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: