পাকিস্তান থেকে সমুদ্রপথে হেরোইন পাচার, সতর্কতা জারি

করোনা প্রাদুর্ভাবের মধ্যে পাকিস্তানের মাকরান উপকূলের গাদ্দার বন্দর থেকে হেরোইন পাচার বেড়ে যাওয়ায় সমুদ্রে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

এসব মাদক ভারত মহাসাগর দিয়ে পাচার হয়ে তানজানিয়া ও মোজাম্বিকের দিকে যায়। ফলে তানজানিয়ান কর্তৃপক্ষ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো নজরদারি বাড়িয়েছে।

দ্যা হিন্দুর প্রতিবেদনে বলা হয়, হেরোইন পাচারের ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া আসামিরা জানিয়েছেন, তারা বড় বড় নৌকায় করে হেরোইনের চালানগুলো পাকিস্তান থেকে তানজানিয়ান সীমান্তের বিভিন্ন উপকূলে নিয়ে যায়। মার্চ থেকে মে মাসের মধ্যে প্রায় ২৫টি এমন মাদকের চালান তানজানিয়ার উপকূলে প্রবেশ করেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে হেরোইনের চালানসহ ১৩ পাকিস্তানী নাগরিককে মোজাম্বিকের উত্তর প্রদেশ ক্যাবো দেলগাদোর উপকূল থেকে গ্রেফতার করা হয়।

এছাড়া ২০১৭ সালে তানজানিয়ায় ডজনেরও বেশি পাকিস্তানি নাগরিককে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তবে ২০১৯ সালে তাদের মধ্যে থেকে ১২ জনকে মুক্তি দেওয়া হয়।

২০১৮ সালে প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে লন্ডন স্কুল অফ ইকোনমিক্স অ্যান্ড পলিটিকাল সায়েন্সের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন বিভাগের জোসেফ হ্যানলন বলেছেন, ‘আফ্রিকা হয়ে হেরোইন পাচার হচ্ছে বিভিন্ন দেশে। এর মধ্যে আফগানিস্তান থেকে পাকিস্তানের মাকরান উপকূল দিয়ে হেরোইন যায় মোজাম্বিকে। সেখান থেকে এসব হেরোইন জলপথে বা আকাশপথে ইউরোপ, আমেরিকায় পাচার করা হয়।’

ইত্তেফাক/জেডএইচ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: