খ্রিস্টান ধর্মে আঘাত: যিশুর জায়গায় চীনা প্রেসিডেন্ট, ক্রশ ধ্বংস 

চীনের কমিউনিস্ট সরকার মুসলিম সম্প্রদায়ের সঙ্গে অমানবিক আচরণ করছে এই অভিযোগ বহু আগের। এবার নতুন করে খ্রিস্টান ধর্ম নিয়ে টানাটানি শুরু করেছে চীন।

এতে করে অভিযোগ উঠেছে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উপর কঠোর নির্দেশনা জারি করেছে বেইজিং।

ইতোমধ্যে চীনে খ্রিস্টানদের প্রতি কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যা খ্রিস্টান ধর্মে কঠিন আঘাত বলে মনে করছেন অনেকে।

চীন সরকার বলছে, কয়েকটি প্রদেশের গির্জার ক্রশগুলো ভেঙে ফেলতে হবে। ফলে জুলাই মাসে একাধিক প্রদেশের গির্জার ক্রশগুলো ভেঙ্গে ফেলেছে কর্তৃপক্ষ।

শুধু গির্জা নয়, খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা নিজেদের বাড়িতে যিশুর কোনো ছবি রাখতে পারবেন না। তার বদলে মাও সেতুং ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের ছবি রাখতে হবে। এমনই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রের অভিযোগ, ক্রশ ভেঙে ফেলার জন্য চীনের কর্মকর্তারা বেশ কয়েকটি গির্জায় হামলা চালায়।

আবার কোথাও খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের যিশুর ছবির পরিবর্তে শি জিনপিংয়ের ছবি প্রদর্শন করতে বাধ্য করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রেডিও ফ্রি এশিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি আনহুই, জিয়াংসু, হুবেই ও ঝেজিয়াংসহ একাধিক প্রদেশে গির্জার ধর্মীয় চিহ্নগুলো ধ্বংস করেছে কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের বাড়ি থেকে যিশুর ছবি সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তার বদলে চীনের কমিউনিস্ট নেতাদের ছবি রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

চীনের পূর্ব প্রদেশ আনহুইয়ে শনিবার ও রবিবার একাধিক চার্চে ক্রশ ভেঙে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

রেডিও ফ্রি এশিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রশাসনিক কর্মকর্তারা ক্রশ ভাঙতে এলে একাধিক খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী সেখানে জড়ো হয়ে প্রতিবাদ জানান।

৭ জুলাই ঝেজিয়াং প্রদেশে ইয়ঙ্গজিয়া এলাকায় একই ঘটনা ঘটেছিলো বলে জানা গিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক গ্রুপ চায়না এইড জানায়, আওডি ক্রাইস্ট চার্চ এবং ইয়িনচাং ক্রাইস্ট চার্চের ক্রস ভাঙতে একটি ক্রেন এবং প্রায় ১০০ শ্রমিক পাঠিয়েছিলো স্থানীয় প্রশাসন।

স্থানীয় খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা জানান, সে সময় তাদের মারধর করা হয়েছে।

এই প্রতিবেদনগুলো এমন সময় এলো যখন চীন উইঘুর মুসলিমদের উপর নির্যাতন করায় সমালোচনার মুখোমুখি রয়েছে। সূত্র: ডেইলি মেইল

ইত্তেফাক/জেডএইচ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: