ভারতে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ২

ভারতের রাজধানীর দিল্লির একটি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে করোনায় আক্রান্ত ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় ওই কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকেই দুই করোনা রোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে ১৯ বছর বয়সী একজনকে আটক করা হয়েছে এবং ওই দৃশ্য ধারণ করার অভিযোগে আরেকজনকেও আটক করা হয়েছে।

ভারতীয় পুলিশের পক্ষ থেকে আরো জানানো হয় যে, ভুক্তভোগী ওই কিশোরী এবং আটক হওয়া সবাই করোনায় আক্রান্ত। এই ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে পুলিশ কর্মকর্তা পরবিন্দর সিং বলেন, অভিযুক্তদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে কিন্তু তারা করোনা থেকে না সেরে উঠা পর্যন্ত তাদেরকে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে দেখভাল করা হবে।

ভারতীয় স্থানীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমে বলা হয়, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের শৌচাগারে এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে;। এই ঘটনা ভুক্তভোগী ওই কিশোরী প্রথমে তার পরিবারকে জানান। পরে তারা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টি অবহিত করেন।

কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ধর্ষণের ঘটনা ভারতে এটি প্রথম না। এর আগেও গত সপ্তাহে মুম্বাইয়ের এক কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে এক নারীকে ধর্ষন করা হয়। এছাড়া বিহারের পাটনায় আইসোলেশন ওয়ার্ডে এক শিশুকে ধর্ষণের দায়ে একজনকে গ্রেফতার করার ঘটনা ঘটেছে।

ইত্তেফাক/এআর

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: