মায়ের গর্ভেই করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত সন্তান

মায়ের গর্ভে থাকা অবস্থায় করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে এক শিশুকন্যা। এর আগেও এমন ভয়াবহ ঘটনা ঘটেছে। তবে বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশ ভারতে এটাই প্রথম ঘটনা।

পুনের সাসুন জেনারেল হাসপাতালে এক মায়ের থেকে করোনা সংক্রমণ হয়েছে ওই গর্ভজাত সন্তানের। এ নিয়ে তৈরি হয়েছে নতুন শঙ্কা।

এই ধরনের সংক্রমণকে বলা হয়, ভার্টিক্যাল ট্রান্সমিশন। অর্থাৎ সন্তান যখন ইউটেরাসে থাকে, তখন মা যদি করোনা আক্রান্ত হন তাহলে মায়ের থেকে প্লাসেন্টার দ্বারা সন্তানের শরীরে ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে।

প্লাসেন্টা হলো এমন একটি অংশ যা গর্ভাবস্থায় তৈরি হয় সন্তানকে অক্সিজেন ও পুষ্টি দেওয়ার জন্য।

সাসুন জেনারেল হাসপাতালের শিশু বিভাগের চিকিৎসক ডা. আরতি কিনিকার সংবাদসংস্থাকে বলেন, সাধারণত সন্তান মায়ের থেকে ভাইরাসে সংক্রমিত হয় জন্মের পর। অর্থাৎ মা আক্রান্ত থাকলে, বুকের দুধ খেতে গিয়ে বা অন্য কোনোভাবে সংস্পর্শে আসলে করোনা আক্রান্ত হতে পারে সন্তান।

কিন্তু ভার্টিক্যাল ট্রান্সমিশনে প্লাসেন্টার দ্বারা গর্ভের মধ্যেই সংক্রমণ হয়। মায়ের উপসর্গ থাকুক বা না থাকুক তার থেকে সন্তানের শরীরে ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে।

ওই সদ্যজাত শিশুর শরীরে ভয়ঙ্কর উপসর্গ দেখা দিয়েছিল বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

শিশুকন্যার জ্বর এসেছিল। এমনকি সাইটোকিন স্টরমও দেখা যায়, যাতে প্রচণ্ড প্রদাহ হয়। তাকে ইনটেনসিভ কেয়ারে রাখা হয়।

২ সপ্তাহ পর সে সুস্থ হয়। পরে মা ও সন্তান দুজনকেই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে তাদের দুজনের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। খবর: কলকাতা ২৪

ইত্তেফাক/জেডএইচ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: