জাহাজ আটকের ঘটনায় ইরান-আমিরাত উত্তেজনা

সংযুক্ত আরব আমিরাতের একটি জাহাজ আটক করেছে ইরান। আমিরাতের কোস্টগার্ডের গুলিতে দুই ইরানি জেলে নিহত হওয়ার পর জাহাজ আটকের ঘটনা ঘটলো।

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, বৃহস্পতিবার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, উপকূলরক্ষায় নিয়োজিত আরব আমিরাতের জাহাজ বেশ কয়েকটি ইরানি ফিশিং ট্রলারে গুলি চালায়। এতে দুজন জেলে নিহত হয়। এরপরই আমিরাতের জাহাজটি আটক করা হয়।

ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ বলেন, আঞ্চলিক জলসীমা লঙ্ঘনের অভিযোগে সোমবার ক্রুসহ জাহাজটি আটক করা হয়েছে।

একই দিন আমিরাতের কোস্টগার্ড ইরানি দুই জেলেকে গুলি করে হত্যা করে এবং তাদের নৌকা জব্দ করে।

এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে বুধবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের পক্ষ থেকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। এতে তারা ক্ষতিপূরণ দিতে সম্মত রয়েছে।

এদিকে ইরানে নিযুক্ত আরব আমিরাতের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্সকে ডেকে প্রতিবাদ জানিয়েছে দেশটি।

ইরান বলছে, আরব আমিরাতের কোস্ট গার্ড বেআইনি কাজ করেছে। দুই দেশের কোস্ট গার্ড দীর্ঘ দিন ধরে যে রীতি ও নিয়ম অনুসরণ করে আসছিল এ ক্ষেত্রে তা লঙ্ঘন করা হয়েছে।

আরব আমিরাতের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স জানিয়েছেন, ইরানের প্রতিবাদ ও বক্তব্য তার দেশের সরকারের কাছে পৌঁছে দেবেন।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ট্রাম্পের মধ্যস্থতায় ইসরাইলের সঙ্গে আরব আমিরাতের একটি শান্তি চুক্তি হয়। এই চুক্তির বিরোধিতা করে আসছে ইরান। ফলে আমিরাতের সঙ্গে ইরানের সম্পর্কের টানাপোড়ন হয়।

এ অবস্থায় নতুন করে জেলে নিহত, জাহাজ আটকের ঘটনা দুই দেশের মাঝে উত্তেজনা আরো বাড়িয়ে দিয়েছে।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: