কোভিডে মৃতদের সৎকারের বাধ্যবাধকতা বাতিল করল শ্রীলঙ্কা

কলম্বো, ২৬ ফেব্রুয়ারি – কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃতদের সবাইকে পুড়িয়ে সৎকারের যে বাধ্যবাধকতা জারি করা হয়েছিল, তা বাতিল করেছে শ্রীলঙ্কা। খবরে এ কথা জানানো হয়।

করোনায় মৃতদের মরদেহ পোড়ানো নিয়ে শ্রীলঙ্কায় বেশ বিতর্ক সৃষ্টি হয়। সমালোচকেরা বলে আসছিলেন, গণহারে কোভিডে মৃতদের পুড়িয়ে সৎকারের আদেশের মাধ্যমে সংখ্যালঘুদের লক্ষ্যবস্তু বানানো হয়েছে এবং অপরাপর ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধা করা হয়নি।

বিশ দিন বয়সী একটি মুসলিম শিশুকে পুড়িয়ে সৎকারে বাধ্য করার পর বিতর্ক তুঙ্গে ওঠে।

আরও পড়ুন : দেশের সীমান্তে যে বহিরাগত শক্তি নজর দেবে, তাদের কাউকে ছাড়া হবে না : ভারতীয় সেনা

ইসলামে মৃতদেহ পোড়ানোয় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। দুই কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার দেশ শ্রীলঙ্কায় প্রায় ২২ লাখ অর্থাৎ ১০ শতাংশ মুসলিম ধর্মাবলম্বী রয়েছে।

কোভিডে মৃতদের দাফন করলে ভূগর্ভের পানি দূষিত হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করে শ্রীলঙ্কার সরকার।

অন্যদিকে, সমালোচকেরা বলছেন, পৃথিবীর ১৯০টিরও বেশি দেশে ভূগর্ভে দাফনের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।

বলা হচ্ছে, সরকারি সিদ্ধান্তের কারণে বেশকিছু মুসলিম, ক্যাথলিক খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ পরিবারের সদস্যেরা তাঁদের নিকটজনের মৃতদেহ শ্রদ্ধার সঙ্গে সৎকার করতে পারেননি।

সূত্র : এনটিভি
এন এইচ, ২৬ ফেব্রুয়ারি

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: