কর্মজীবনে সফলতা পেতে মেনে চলুন এই কয়েকটা নিয়ম

অফিসে সব মানুষ কি এক ধরনের হয়? একেবারেই না! এক এক জনের স্বভাব, কর্মক্ষমতা, এমনকি কোনও বিষয়কে বোঝার ক্ষমতা হয় এক এক রকমের।

কেউ কেউ দারুন কাজ করেন। আবার কেউ ওয়াকিবহালই নয় তার সুপ্ত ক্ষমতা সম্পর্কে। নিজের দোষ এবং গুণ সম্পর্কে জেনে সেই মতো যদি শ্রম দেওয়া যায় তাহলে কর্মজীবনের গ্রাফ কখনই নিম্নমুখি হয় না। আপনি যদি আপনার কাজে এক নম্বরে পৌঁছাতে চান, তাহলে এই প্রবন্ধটি পড়তেই হবে আপনাকে।
এই প্রবন্ধে এমন কিছু নিয়ম সম্পর্কে আলোচনা করা হবে যা মেনে চললে আপনি হয়ে উঠতে পারবেন সুপার অ্যাকটিভ। তাহলে অপেক্ষা কিসের এখনই পড়ে ফেলুন এই লেখাটি।

গুরুত্ব অনুসারে কাজ সাজিয়ে নিন: কোনও কাজ শুরু করার আগে মনে মনে একটা ডেডলাইন ঠিক করে নিন। আর প্রতিবার নিজেকে হারানোর চেষ্টা করুন। এমনটা তখনই সম্ভব হবে যখন আপনি খুচরো কাজগুলি আগে থেকেই করে রাখবেন। যেমন ধরুন সব সময় টেমপ্লট মেল রেডি রাখবেন, এমনটা করলে দেখবেন অনেকটা সময় বাঁচবে।

সব কাজ আগে থেক প্লান করে রাখুন: নিখুঁতভাবে কাজ করার জন্য একটি নির্দিষ্ট প্লান থাকাটা খুব জরুরি। তবে একেবারে অনেক কাজের লিস্ট বা প্লান বানিয়ে ফেলবেন না। এমনটা করলে আপনার কর্মক্ষমকা কমবে। পরিবর্তে ছোট ছোট টার্গেট সেট করুন। তাহলেই দেখবেন কেল্লাফতে!

নিজের কাজ সম্পর্কে সচেতন হন: একাগ্রতার সঙ্গে কাজ করার চেষ্টা করবেন। অফিসে থাকাকলীন ফোকাস যেন এদিক-ওদিক হয়ে না যায়। প্রসঙ্গত, কাজ করতে করতে মাঝে মাঝে অল্প সময়ের ব্রেক নেবেন। এমনটা করলে দেখবেন কাজের স্পিড এবং দক্ষতা, দুইই বাড়বে।

কাজটা মনে মনে ছকে ফেলুন: যে কাজেই হাত দিন না কেন সেটা নিয়ে একটু ভেবে নিন আগে। আসন্ন কাজটির বিষয়ে আপনার পুরো জ্ঞান এবং বিষয় বস্তু সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা থাকবে তো সেটি জটজলদি শেষ করতে পারবেন।

এম ইউ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: