পুরুষরা যে কারণে একাধিক নারীর প্রতি আসক্ত হয়

পুরুষরা যে কারণে একাধিক নারীর প্রতি আসক্ত হয়- একটা প্রচলিত ধারণা রয়েছে যে, পুরুষ বা নারী প্রত্যেকেই জীবনে একাধিক সঙ্গী বা সঙ্গিনী পেতে চান। কিন্তু গবেষকরা বলছেন, এটা সম্পূর্ণ ভুল। কখনই পুরুষ ও নারীদের মধ্যে সঙ্গী বা সঙ্গিনী পাওয়ার আকাঙ্ক্ষা একই রকমের হয় না। বরং নারীদের চেয়ে অনেক বেশি এই আকাঙ্ক্ষা বা আসক্তি থাকে পুরুষদের মধ্যে। যৌবনকালই হোক বা মধ্যবয়স অথবা বার্ধক্য একাধিক সঙ্গিনীর সান্নিধ্য পেতে চান সব পুরুষই৷ কিন্তু কেন, জানেন?

সম্প্রতি ১৫ হাজার পুরুষ ও নারীদের মধ্যে একটি সমীক্ষা চালান গবেষকরা৷ সেই সমীক্ষা থেকেই তারা প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করেন৷ জানা গেছে, সমীক্ষায় অংশগ্রহণ করা পুরুষ ও নারীদের আলাদা আলাদাভাবে প্রশ্ন করা হয় তাদের সঙ্গী বা সঙ্গিনীর বিষয়ে৷

জানতে চাওয়া হয়, এখনও পর্যন্ত কতজন পুরুষ বা নারী তাদের জীবনে এসেছে? বা কতজনের সঙ্গে এখন পর্যন্ত যৌন সঙ্গমে লিপ্ত হয়েছেন তারা? যা উত্তর এসেছে তাতে কার্যত অবাক গবেষকরা৷

জানা গেছে, উত্তরে নারীদের তুলনায় অনেক বেশি সঙ্গিনীর কথা উল্লেখ করেছেন পুরুষরা৷ ১৬ থেকে ৭৪ বছর বয়সের মধ্যে পুরুষরা জানিয়েছেন, এই সময়কালের মধ্যে তাদের জীবনে গড়ে ১৪ জন করে নারী এসেছে৷ কারও সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে উঠেছে, কারও সঙ্গে হয়েছে কেবল মিষ্টি প্রেম সম্পর্ক৷

অপরপক্ষে একই প্রশ্নের উত্তরে, একই বয়সের নারীরা জানিয়েছেন, গড়ে সাতজন করে পুরুষের সঙ্গে প্রেম করেছেন বা যৌন সম্পর্ক গড়ে উঠেছে৷ অর্থাৎ এটা প্রমাণিত হয়েছে, নারীদের তুলনায় পুরুষদের প্রেমে পড়ার বা যৌন আসক্তি অনেক বেশি৷

উত্তরের এই ট্রেন্ডের পিছনে যথেষ্ট যুক্তি রয়েছে বলে জানান গবেষকরা৷ তাদের মতে, বয়সের সঙ্গে সঙ্গে পুরুষদের মধ্যে যৌন আসক্তি বাড়তে থাকে। ফলে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কেবল একাধিক নারীর সান্নিধ্যই পেতে চান তারা৷ তাদের মনে বাড়তে থাকে সঙ্গমের ইচ্ছা৷ যা আরও বেশি করে পুরুষদের মধ্যে সঙ্গিনী খোঁজার তাড়না বাড়ায়৷

এম ইউ

পুরুষরা যে কারণে একাধিক নারীর প্রতি আসক্ত হয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: