অভিজাত রুচির পুরুষের জন্য স্যুট

আলফা রোমিওর অনুপ্রেরণাতেই সব মৌসুমে পরার স্যুট তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে হাওয়েস অ্যান্ড কার্টিস। এ উদ্ভাবনী ও অনন্য কনসেপ্টটি তারা ইতালির এ ঐতিহ্য ও মার্কে আলফা গিউলিয়েতা ডিজাইন ও প্রযুক্তি থেকেই অনুপ্রাণিত হয়েছে। প্রযুক্তি, উদ্ভাবন ও সৃজনশীলতার অনন্য এক মিশেল ঘটিয়েছে তারা।

হাই পারফরম্যান্স এ স্যুটের বিষয়টি গিউলিয়েতার ডিএনএ প্রযুক্তি থেকে নেয়া। এজন্য খুবই ব্যয়বহুল ইতালীয় সুতা ব্যবহার করা হয়েছে। ১৯১৩ সালে হাওয়েস অ্যান্ড কার্টিসের ক্ল্যাসিক সংগ্রহ থেকে নেয়া হয়েছে সুতাগুলো।

এর সঙ্গে পানিরোধী প্রযুক্তি ব্যবহার করে কাপড়টি তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া আরামদায়ক করার জন্য এর মধ্যে এমন ব্যবস্থা রাখা হয়েছে, যা আপনার শরীরকে গরম রাখবে। গায়ে দিয়েই বুঝতে পারবেন অন্য যেকোনো স্যুটের থেকে এটা অনন্য।

স্যুটের ভেতরে গিউলিয়েতার অনন্য ডিজাইন ও ফিচারগুলো আপনাকে অভিভূত করবে। আর হাতের দিকেও হানিকম্প গ্রিলের লাইনিংয়ের কারণে আরামবোধ করবেন।

আধুনিক পেশাজীবীদের দাবি মেটাতেই হাওয়েস অ্যান্ড কার্টিস এ মডেলের স্যুট তৈরি করেছে। এ স্যুটগুলো বাজারে ছাড়ার আগে আয়োজন করা হয়েছিল ফটোশুটের। অবশ্য শুধু পুরুষই নয়, এ ফটোশুটে অংশ নেয়া নারী মডেলের জন্যও তৈরি করা হয়েছে এমন শার্ট। পেছনে ছিল ক্যানারি ওয়ার্ফের গাড়ি।

আল রোমিওর ঐতিহ্যবাহী লোগোর সঙ্গে গিউলিয়েতা আরো অ্যাকসেসরিজ তৈরি করেছে। যেমন— টাই, পকেট স্কয়ার, কাফলিংকস, ল্যাপেল পিন ও টাই স্লাইড।

ফটোশুটে নারীর পরনে থাকা শার্টে বিশেষ ধরনের ফ্লুইড লাইন ছিল। কলার ও লেগিংসটি ছিল গাড়ির বাম্পারের মতো লাল। প্রতিফলন ছিল শার্টের বোতামেও।

হাওয়েস অ্যান্ড কার্টিস ডিজাইনার কেট রিগান বলেন, ‘এ সীমিত সংখ্যক পোশাকগুলো গিউলিয়েতার ডিজাইন দ্বারা অনুপ্রাণিত। ফ্লুইড লাইন থেকে শুরু করে সব ক্ষেত্রেই গাড়িটির প্রতিচ্ছবি রাখার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি করপোরেট পেশাজীবীদের কথা মাথায় রেখেই এগুলো তৈরি করেছি।

সূত্র: লাক্সারিয়াস ম্যাগাজিন
এম এন / ০১ নভেম্বর

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: