উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি

দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। সুরমা, কুশিয়ারা,সারি ও যাদুকাটা নদীর পানি বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় সিলেট অঞ্চলের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে।

অপরদিকে, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা ও জামালপুর জেলার বন্যা পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে। তবে টাঙ্গাইল, মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী ও ফরিদপুর জেলার বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এদিকে, বিভিন্ন জেলায় বন্যাদুর্গতদের মাঝে সরকারিভাবে ত্রাণ-সামগ্রী বিতরণও চলছে।

সুনামগঞ্জ ও সিলেট জেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। সুরমা নদীর পানি সিলেট পয়েন্টে বুধবার বিকেল ৩টা পর্যন্ত সময়ে বিপদ-সীমার ৩৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে এবং কুশিয়ারা, সারি ও যাদুকাটা নদীর পানি সব পয়েন্টেই বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। এদিকে সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যাদুর্গতদের মাঝে সরকারি উদ্যোগে ত্রাণ তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।তবে বন্যাকবলিত সিলেট সদর উপজেলায় মানুষের দুর্ভোগ লাঘবে নতুন করে ১শ’ মেট্রিক টন চাল ও নগদ ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

সিলেটের জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে এ অঞ্চলের বন্যাকবলিত মানুষের জন্য ১৮ মেট্রিক টন চাল ও নগদ ৭২ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

অপরদিকে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ জানিয়েছেন, এ জেলার বন্যা পরিস্থিতি আগের তুলনায় কিছুটা ভালো। তিনি জানান, সুরমা ও অন্যান্য নদ-নদীর পানি বিপদসীমার নিচে নেমে আসতে শুরু করেছে। বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রসহ জেলার বন্যাকবলিত এলাকায় সরকারি ত্রাণ তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে বলেও জেলা প্রশাসক উল্লেখ করেন।

ইত্তেফাক/ইউবি

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: