প্রতারক ধরতে থানায় অভিযোগ করলো ভূমি মন্ত্রণালয়

ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিবের স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া নিয়োগপত্র প্রদানকারী লালমনিরহাট নিবাসী কথিত শিক্ষক জনৈক ‘উকিল রায়’ ও ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিবের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা হিসেবে পরিচয়দানকারী ‘সায়েম হোসেনের’ বিরুদ্ধে অবিলম্বে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ভূমি মন্ত্রণালয় পল্টন মডেল থানায় বুধবার ( ১৫ জুলাই) এক অভিযোগ দায়ের করেছে। উপর্যুক্ত দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার গুরুতর অভিযোগ রয়েছে।

গত ১২ জুলাই ২০২০ তারিখে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের সংবাদে ‘সই জাল করে ভুয়া নিয়োগপত্র’ শীর্ষক এক প্রতিবেদন প্রচারিত হয়। উক্ত প্রতিবেদন তৈরির সময় প্রতারণার ঘটনা সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট রিপোর্টার কর্তৃক গৃহীত ভূমিমন্ত্রীর মতামতও প্রচারিত হয় উক্ত টিভি সংবাদ প্রতিবেদনটিতে। পরেরদিন ১৩ জুলাই উক্ত প্রতারণা সংশ্লিষ্ট ঘটনার সত্যতা যাচাই করার জন্য ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী নির্দেশ প্রদান করেন।

ফলশ্রুতিতে ভূমি সচিব মোঃ মাক্‌ছুদুর রহমান পাটওয়ারী বিষয়টি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে সংশ্লিষ্ট শাখাকে নির্দেশ প্রদান করেন। প্রতারণা সংঘটিত হওয়ার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়ায় ভূমি সচিবের নির্দেশে মন্ত্রণালয় আজ এ অভিযোগ দায়ের করে।

ভূমি মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে কম্পিউটার অপারেটর সহ অন্যান্য পদে গত দুই বছরেরও অধিক সময় ধরে কোন নিয়োগ কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়নি। ‘আউট সোর্সিং’-এর মাধ্যমেও এসব পদে কোন নিয়োগ প্রদান করা হয়নি। প্রচারিত সংবাদে ভূমি মন্ত্রণালয়ের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা হিসেবে পরিচয়দানকারী সায়েম-এর সাথে ভূমি মন্ত্রণালয়ের কোন সম্পৃক্ততা নেই। তিনি ভূমি মন্ত্রণালয়ের কোন কর্মচারী নন। ভূমি মন্ত্রণালয় মনে করে এ ব্যক্তি একজন ঠগ ও জালিয়াতকারী। একইভাবে জনৈক ‘উকিল রায়’ও ভূমি মন্ত্রণালয়ের নামে ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে জালিয়াতি করে প্রতারণার শিকার ভুক্তভোগী কাছে ঘুষ গ্রহণ করেছেন বলে প্রতীয়মান। ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিবের স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া নিয়োগপত্র প্রদান করা একটি গুরুতর ও দণ্ডনীয় ফৌজদারি অপরাধ।

উল্লেখ্য, ভূমি মন্ত্রণালয় কিংবা এর আওতাধীন দপ্তর/সংস্থায় চাকুরী প্রদানের নাম করে কেউ যদি অর্থ দাবী করে তাহলে তৎক্ষণাৎ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অবহিত করার জন্য সম্মানিত নাগরিকগণকে পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে মন্ত্রণালয় থেকে। ভুয়া নিয়োগে বিভ্রান্ত না হয়ে সতর্ক থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিকভাবে অনুরোধ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ভূমি মন্ত্রণালয় বেশ কয়েকবার সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করেছে।

ইত্তেফাক/এসআই

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: