১৫ আগস্টের মাস্টার মাইন্ডদের বিচার করা হবে: যুবলীগ চেয়ারম্যান

১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মদদদাতা ও মাষ্টার মাইন্ড যারা ছিলো সেই সকল ষড়যন্ত্রকারীদের মুখোশ উন্মোচন করা হবে বলে জানিয়েছেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ।

বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের সামনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ আয়োজিত শোকসভা, দোয়া মাহফিল ও তবারক বিতরণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হয়েছে। ১৫ আগস্টের মাষ্টারমাইন্ড যারা তাদেরও বিচার করা হবে।

১৫ আগস্টে সুপরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে জাতিকে ধ্বংস করার একটি নীল নকশা হয়েছিল উল্লেখ করে পরশ বলেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধের ঘাতকদের বিচার করেছি, ঠিক সেভাবেই এর পিছনে যেসব ঘাতকরা আছে তাদের বিচার করা হবে।

‘১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড কারা? তখন কারা দেশের ক্ষমতায় ছিল? পাকিস্তানিদের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করে খুনিদের পুরস্কৃত করা, দূতাবাসে চাকরি দেওয়া, তাদের পুনর্বাসন কারা করেছিল? আজকে তো এসব ষড়যন্ত্রকারীদের মুখোশ উম্মোচন হয়ে যাচ্ছে।’

যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, ১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্ট হামলা একই সূত্রে গাঁথা। এর মাস্টার মাইন্ড ছিলেন জিয়াউর রহমান আর ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাস্টার মাইন্ড ছিলেন খালেদা জিয়া ও তার ছেলে। বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদ তার ফাঁসির রায় কার্যকর হওয়ার আগে বলে গেছেন, ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন জিয়াউর রহমান। তাই যুবলীগের দাবি-জিয়াউর রহমানকে মরণোত্তর ফাঁসির রায় কার্যকর করতে হবে।

ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইনুদ্দিন রানার সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজার পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা বদিউল আলম বদি, আসাদুল হক আসাদ, গোলাম ফারুক তুহিন, মহিউদ্দিন খোকা, মিজানুর রহমান মিজান, জাকিয়া সুলতানা শেফালী, মোয়াজ্জেম হোসেন, জহিরউদ্দিন খসরু, এন আই আহমেদ সৈকত।

উপস্থিত ছিলেন যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সহ-সভাপতি আহাম্মদ উল্লাহ মধু, সোহরাব হোসেন স্বপন, সরোয়ার হোসেন মনা, আনোয়ার ইকবাল সান্টু, নাজমুল হোসেন টুটুল, কামাল উদ্দিন খান, সৈয়দ আহমদ, মাহাবুবুর রহমান পলাশ, যুগ্ন সম্পাদক জাফর আহমেদ রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু, দপ্তর সম্পাদক এমদাদুল হক, উপ-দপ্তর সম্পাদক খন্দকার আরিফুজ্জামান, সাইফুল ইসলাম আকন্দ প্রমুখ।

ইত্তেফাক/এসআই

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: