ইন্টারনেট ‘স্বাধীন’ কিন্তু ‘নিরাপদ’ নয়

this is caption

ইন্টারনেট মানুষকে অধিকতর স্বাধীনতার সুযোগ এনে দিলেও এতে মতামত প্রকাশ করাটাকে এখনো অনেকে নিরাপদ বলে মনে করেন না। বিবিসির এক জরীপে এমন মতামত পাওয়া গেছে।

বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসের এক জনমত জরীপে উত্তরদাতাদের ৬৭ শতাংশ মনে করেন ইন্টারনেট তাদের জন্য অধিকতর স্বাধীনতার সুযোগ সৃষ্টি করেছে। তবে একই সাথে উত্তরদাতাদের অর্ধেকই বলেছেন ইন্টারনেটে মতাতমত প্রকাশকে তারা নিরাপদ বলে মনে করেন না।

বিভিন্ন মহাদেশের ১৭ টি দেশে ১৭০০০ লোকের এই জনমত জরীপ চালানো হয়। ফ্রিডম অর্থাৎ মুক্তি নিয়ে বিবিসির বিশেষ এক অনুষ্ঠানমালার অংশ হিসাবে জরীপটি চালানো হয়েছে।

ইন্টারনেটের স্বাধীনতা এবং এর বিপদ, এই দুটি দিকই উঠে এসেছে বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসের জন্য পরিচালিত এই জরিপে। এতে অংশগ্রহণকারী প্রতি দুজনের একজনই ইন্টারনেটকে মত প্রকাশের জন্য একটা অনিরাপদ জায়গা বলে মনে করেন। কিন্তু আবার দুই তৃতীয়াংশ উত্তরদাতা এটাও বিশ্বাস করেন যে ইন্টারনেট তাদের জন্য অনেক বেশি স্বাধীনতা এনে দিয়েছে।

ইন্টারনেটের ব্যাপারে উদ্বেগ মূলত এর ওপর সরকারি নজরদারিকে কেন্দ্র করে।

সতেরটি দেশেই উত্তরদাতাদের এক তৃতীয়াংশ বলেছেন, তাদের ধারণা তারা সরকারি নজরদারির বাইরে নন। যুক্তরাষ্ট্র এবং জার্মানীতে অর্ধেকের বেশি উত্তরদাতা বলেছেন তারা সরকারের নজরদারিতে আছেন বলে মনে করেন।

তবে এর উল্টো চিত্র চীন, রাশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়ায়। সেখানে বেশিরভাগ মানুষ মনে করেন তাদের ওপর কোন নজরদারি নেই। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়েও উদ্বেগ দেখা গেছে এই জরিপে, আটটি দেশে প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষের ধারণা তাদের দেশে সঠিক, সত্য এবং নিরপেক্ষতার সঙ্গে সংবাদ পরিবেশনের স্বাধীনতা নেই।

যাকা

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: