‘মেসির চোট গুরুতর নয়’

ডান পায়ের চোটের কারণে মায়োর্কার বিপক্ষে লা লিগার ফেরার ম্যাচেই লিওনেল মেসির খেলা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছিল। সে শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে কোচ কিকে সেতিয়েন জানালেন, চোটটা তেমন গুরুতর নয় মোটেও। মেসি খেলতে পারবেন প্রথম ম্যাচ থেকেই।

গুঞ্জনের শুরু গত বুধবার থেকে। সেদিন দলীয় অনুশীলনে ছিলেন না মেসি। স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেল ‘টিভি থ্রি’ জানায় আর্জেন্টাইন তারকার চোটের খবর। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, মঙ্গলবারেই ডান পায়ে অস্বস্তি অনুভব করেন তিনি, পরে পরীক্ষায় ধরা পড়ে পায়ের মাংসপেশিতে হালকা চোট পেয়েছেন মেসি, এ কারণেই অনুশীলনে আসেননি তিনি।

শুক্রবার ব্যাপারটি নিশ্চিত করে বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষ। তার পরই মায়োর্কা ম্যাচে মেসির না থাকার গুঞ্জন মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমে। শনিবার থেকে অবশ্য সতীর্থ নেলসন সেমেদোর সঙ্গে আলাদা হয়ে অনুশীলন করেছেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

সেতিয়েন জানান, খুব বড়ো নয় মেসির চোট। সম্প্রতি মুভিস্টারকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে বার্সা কোচ বলেন, ‘হালকা চোটের কারণে দলীয় অনুশীলনে না আসা খেলোয়াড় কেবল মেসিই নয়, আরো কয়েক জনের এই সমস্যা হয়েছে। লিওর ছোট্ট একটা চোট আছে, তবে সেটা খুব গুরুতর কিছু নয়।’

তিনি আরো যোগ করেন, ‘আমার মনে হয়, সে পুরোপুরি ঠিক আছে এখন এবং কোনো সমস্যার মুখে পড়ছে না। বাকি খেলোয়াড়রাও একই পথে আছে। লিগ শুরু হলে পরিস্থিতি কী হয় তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আমাদের।’

করোনাসৃষ্ট অনাকাঙ্ক্ষিত ছুটি শেষে আগামী ১১ জুন মাঠে ফিরবে লা লিগা। ১৩ জুন মায়োর্কার মাঠে ম্যাচ দিয়ে আবারও মাঠে ফিরবে বার্সা। এখন পর্যন্ত ২৭ ম্যাচ খেলে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ২ পয়েন্টে এগিয়ে আছে কাতালান ক্লাবটি।

কোচ সেতিয়েন জানালেন এমন মুহূর্তে মেসিকে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন তার, ‘আমাদের সামনে অনেক ম্যাচ বাকি আছে। এমন সব ম্যাচ খেলতে হবে ছোটো একটা স্কোয়াড নিয়ে। এ কারণেই মেসিকে আমি সব ম্যাচে মাঠে চাই।’

রিয়াল যেভাবে বার্সার ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে তাতে সেতিয়েনের মনে হচ্ছে, লা লিগা জিততে হলে আগে সব ম্যাচেই জিততে হবে দলকে। স্প্যানিশ এই কোচের ভাষ্য, ‘প্রাক-মৌসুমে আমরা প্রস্তুতি ম্যাচ খেলি, খেলোয়াড় পর্যালোচনা করি। কিন্তু এখন পরিস্থিতি ভিন্ন। এখন আসল ম্যাচেই সেটা করতে হবে। আর এখন পর্যন্ত লিগের যেমন অবস্থা তাতে মনে হচ্ছে লিগ জিততে প্রতিটি ম্যাচেই জিততে হবে আমাদেরকে।’

‘আমরা দেখব ম্যাচগুলো কেমন হয় এবং প্রতিটি খেলোয়াড়ের কি অবস্থা কেননা, সবাই ভিন্ন রকমের খেলোয়াড়। আমরা মনে করি, চ্যাম্পিয়ন হতে হলে আমাদের প্রতিটি ম্যাচ জিততে হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: