মাঠে অনুশীলনের অনুমতি পেলেন ক্রিকেটাররা

করোনার এই মহামারির কারণে দীর্ঘদিন ধরেই মাঠের বাইরে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। এমন অলস সময়ে কেউ কেউ ব্যক্তিগত উদ্যোগে নিজ বাসায় অনুশীলন করলেও একমাত্র মুশফিকুর রহিম ফর্টিজ ফুটবল একাডেমি মাঠে বাসার বাইরে অনুশীলন শুরু করেছেন। তবে এবার তারা ইচ্ছে করলে দেশের আটটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ভেন্যুতে ঐ ব্যক্তিগত পর্যায়ের অনুশীলন করতে পারবেন।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানান, আগামী শনিবার থেকে ঢাকার মিরপুরের শেরে বাংলা স্টেডিয়ামসহ দেশের বিভাগীয় পর্যায়ের আটটি স্টেডিয়াম প্র্যাকটিস করার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। অর্থাৎ শনিবার থেকে ক্রিকেটাররা চাইলে সেই স্টেডিয়ামে এসে অনুশীলন করতে পারবেন।

তবে ক্রিকেটারদের এই অনুশীলন হবে নিজ নিজ উদ্যোগে। জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাই কেবল সে অনুশীলনে যোগ দিতে পারবেন। তবে সেটা দলের রুটিন প্র্যাকটিস নয়। প্রতিটি ক্রিকেটারের ইচ্ছে মাফিক।

তারপরও এখন করোনার ভেতরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং যতটা সম্ভব কম ঝুঁকি নিয়ে যাতে ক্রিকেটাররা নির্বিঘ্নে অনুশীলন করতে পারেন, সেদিকে নজর রাখছে বিসিবি। দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা দু’দিন আগে মেইলে ক্রিকেটারদের জানিয়ে দিয়েছি, যারা যারা আগ্রহী তাদের নাম জমা দিতে। আমরা শুক্রবারের মধ্যে নাম পেয়ে গেলেই বুঝতে পারবো যে কত জন ঐ নিজ নিজ অনুশীলনে যোগ দিচ্ছেন।’

দেবাশীষ চৌধুরী আরও জানিয়েছেন, যে ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলন হলেও তার সময়সূচী এবং ধরন কি হবে, সেটা বোর্ড থেকেই ঠিক করে দেয়া হবে। সেই সঙ্গে দেবাশীষ যোগ করেন, ‘সংখ্যায় বেশি বা কম যতজনই হোন না কেন, দল বেঁধে কোনো অনুশীলন হবে না। সবাই যাতে একসাথে অনুশীলনে না আসেন, একটা গ্যাদারিং না হয়, তাই রোস্টার করে দেয়া হবে। সেই কারণেই আমরা নাম চাচ্ছি। নাম পেলেই জানা যাবে অনুশীলনে উৎসাহী সংখ্যা আসলে কত। তখন তাদের সময় ভাগ করে দেয়া হবে।’

বিসিবি প্রধান চিকিৎসক আরো জানিয়েছেন, ‘এখন সময়সূচি আমরা নির্ধারণ করে দেব। পাশাপাশি কি কি প্র্যাকটিস করা যাবে, তাও ক্রিকেট অপারেশন্স থেকেই ঠিক করে দেয়া হবে। আমাদের পরিষ্কার জানিয়ে দেয়া হয়েছে, আগামী শনিবার থেকে ক্রিকেটারদের যে ব্যক্তিগত পর্যায়ের অনুশীলন শুরু হবে, সেখানে শুধু খোলা মাঠে ফিজিক্যাল ট্রেনিং আর শেরে বাংলার জিমে গিয়ে জিমওয়ার্ক করতে পারবেন ক্রিকেটাররা। আশা করছি, ঈদের ছুটির পরে অবস্থার উন্নতি ঘটলে হয়তো বড় পরিসরে সবাইকে নিয়ে অনুশীলন করা যেতে পারে।

ইত্তেফাক/এসআই

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: