‘সবাই আমার ভুল থেকে শিক্ষা নিক’

ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব গোপন করে আইসিসির নিষেধাজ্ঞায় পড়া সাকিব আল হাসান বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন। ক্রিকেটের বাইরে থাকলেও নিউইয়র্কে দুই কন্যার সঙ্গে সময় কাটছে তার। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আগামী ২৯ অক্টোবর থেকেই ক্রিকেটীয় কার্যক্রমে ফিরতে পারবেন তিনি।

জনপ্রিয় ক্রিকেট ভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে সাকিব জানিয়েছেন, আগামী মাসেই অনুশীলনে নামবেন তিনি। ব্যক্তিগত আয়োজনে ইংল্যান্ডে অনুশীলন শুরু করবেন তিনি।

এমনকি ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব গোপন করার বিষয়ে নিজের ভুলটা অকপটে স্বীকার করেছেন সাকিব। বাঁহাতি এই অলরাউন্ডারের চাওয়া, তার করা ভুল থেকে সবাই শিক্ষা নিক। এমন ভুল যেন আর কেউ না করে।

সম্প্রতি ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে সাকিব বলেন, ‘এটা অন্য কারো সঙ্গে হতে পারত এবং আমি তার কাছ থেকে শিখতে পারতাম। কিন্তু এটা আমার সঙ্গে হয়েছে এবং এখন সবাই আমার কাছ থেকে শিখতে পারে। প্রথম দিন থেকে আমি সৎ থাকার চেষ্টায় ছিলাম। পরে ওরা (আইসিসি) যখন আমাকে প্রশ্ন শুরু করে তখন আমি ওদের কাছ থেকে কিছু লুকাইনি। আমি সব সরাসরি বলেছি। আমি ভুল করেছি। এমন ভুল আমার মতো ক্রিকেটারের করা উচিত নয়। এটার জন্য আমি ক্ষমা চেয়েছি। আমি সামনে এগিয়ে যেতে চাই। আমি চাই সবাই আমার ভুল থেকে শিক্ষা নিক এবং এমন ভুল না করুক।’

মানুষ মাত্রই ভুল হয়। সৎ হলেও মানুষের কাজে ভুল হতে পারে। সাকিবের ক্ষেত্রে এমনই ঘটেছে। বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়ক বলেছেন, ‘আপনাকে সৎ হতে হবে। আপনার কারো সঙ্গেই মিথ্যা বলা ঠিক না এবং অন্য কিছু দেখানো উচিত না। যা হওয়ার তা হয়ে গেছে। সবাই ভুল করতে বাধ্য। আপনি কখনো শতভাগ সঠিক হবেন না। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, আপনি কীভাবে সেসব ভুল থেকে ফিরে আসেন। আপনি অন্য সবাইকে বলতে পারেন সেই সব ভুল না করতে। সেই পথ সম্পর্কে অন্যদের জানাবেন যাতে করে তারা না যায়।’

এদিকে আগামী মাস থেকেই ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনুশীলনে ফিরছেন সাকিব। লন্ডনেই অনুশীলন শুরু করবেন তিনি। ক্রিকইনফোকে সাকিব বলেছেন, ‘আগামী মাস থেকেই আমার অনুশীলনে ফেরার কথা। তিন মাস সময় পাব নিজেকে ভালো মতো প্রস্তুত করার জন্য। আমি এত দিন কিছু করিনি। এই তিন মাসই যথেষ্ট, নিজেকে ক্রিকেটের জন্য আদর্শ গড়নে নিয়ে যাওয়ার জন্য। আপাতত এটাই পরিকল্পনা।’

মাঠে ফেরার আগে আরো কিছু দিন পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে চান সাকিব। ঈদুল আজহার পরই ক্রিকেটে ফেরার ইচ্ছা বাঁহাতি এই অলরাউন্ডারের। তার আগে দুই কন্যাকে আরো কিছু দিন সময় দেওয়ার পরিকল্পনা সাকিবের। তিনি বলেছেন, ‘আগামী দুই সপ্তাহ মেয়েদের দেখাশোনা করেই কাটবে, পরিবারের সঙ্গে কাটাব। এরপর আমি ক্রিকেটে মনোযোগ দেব।’

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: