আজ দুরন্ত বায়ার্নের সামনে লিওঁ

কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সেলোনাকে রীতিমতো উড়িয়ে দেওয়ার পর বায়ার্ন মিউনিখ সেমিফাইনালে লিওঁর মুখোমুখি হচ্ছে। এর আগে সাম্প্রতিক ফর্মের পাশাপাশি বায়ার্নের অনুপ্রেরণা ইতিহাস। তবে বায়ার্নকে মরণকামড় দেওয়ার হুংকার ছেড়ে রেখেছে লিওঁ।

মৌসুমের মাঝামাঝি কোচ বদলালেও সাম্প্রতিক সময়ে বায়ার্ন খেলছে শেষ কয়েক বছরে নিজেদের সেরা ফুটবল। ফরোয়ার্ড রবার্ট লেভান্ডোভস্কি আছেন দুর্ধর্ষ ফর্মে, চলতি মৌসুমে ইতিমধ্যেই করেছেন ৫৪ গোল। সঙ্গে থমাস মুলার, সের্জ গেনাব্রিরাও আছেন দারুণ ছন্দে। এরই ফল লকডাউনের পরে অপরাজিত থাকা। দুই দিন আগে বার্সেলোনাকে ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছিল কোচ হ্যান্সি ফ্লিকের শিষ্যরা।

ঘরোয়া কাপ লিগ শিরোপা জিতে ট্রেবলের অপেক্ষায় আছে দলটি। এমন পরিস্থিতিতে ইতিহাসও কথা বলছে তাদের পক্ষেই। দুই দলের আটবারের দেখায় বায়ার্নের জয় চারটি, দুবার করে ড্র করেছে দুই দল। লিওঁর জয় দুটিতে, তবে তার একটিও নকআউট পর্বে নয়। ১০ বছর আগে প্রথমবারের মতো যখন সেমিফাইনালে উঠেছিল লিওঁ, এই বায়ার্নের কাছেই হেরেছিল তারা দুই লেগে।

আরো পড়ুন : লাইপজিগকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে পিএসজি

সাম্প্রতিক ফর্ম আর ইতিহাস, দুয়ের মিশেলে দলের অতিআত্মবিশ্বাসী হয়ে পড়াটা খুবই সম্ভব বায়ার্নের। তবে কোচ হ্যান্সি ফ্লিক ব্যাপারে সতর্ক। বললেন, ‘যারা আমাকে ভালোভাবে চেনেন, তারা নিশ্চয়ই জানেন আমি অতীতে বসবাস করার লোক নই। বার্সার বিপক্ষে জয়ের পর আমরা অবশ্যই খুশি ছিলাম। তবে আমরা জানি ফুটবলে কত সহজে ব্যাপারগুলো বদলে যেতে পারে, আর তাই আমরা পরিকল্পনা করে রেখেছি। খেলাটা শুরু হবে একেবারে শূন্য থেকেই। অনেক ব্যাপার আছে, যেখানে উন্নতি প্রয়োজন আমাদের।

এদিকে লিওঁ নকআউটে ইতিমধ্যে জুভেন্তাস আর ম্যানচেস্টার সিটির মতো দুই শিরোপার দাবিদারকে ছিটকে দিয়ে এসেছে সেমিফাইনালে। কোচ রুডি গার্সিয়ার অধীনে দলটা এবার স্বপ্ন দেখছে বায়ার্নকেও হারানোর।

সেমিফাইনালে প্রতিপক্ষকে নিয়ে লিওঁ মিডফিল্ডার ম্যাক্সওয়েল কর্নের মূল্যায়ন, ‘ঐতিহ্যবাহী বার্সার বিপক্ষে বায়ার্ন এমনটা করবে, এটা মোটেও কল্পনা করিনি আমরা। সেই ম্যাচে বায়ার্নের পারফরম্যান্সই প্রমাণ করে, দলটা দুর্দান্ত, তাদের হালকা করে দেখা চলবে না মোটেও।

তবে আজ বুধবার বায়ার্নের মুখোমুখি হওয়ার আগে নিজেদের কৌশলেই স্থির থাকতে চায় দলটি, জানালেন লিওঁ মিডফিল্ডার। বললেন, ‘আমরা জুভেন্তাস, সিটির মতো দলকে হারিয়ে এখানে এসেছি। আমাদের পা মাটিতেই রাখতে হবে আর নিজেদের ওপরই বেশি মনোযোগী হতে হবে।

এদিকে প্রথম সেমিফাইনালে আরবি লাইপজিগকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে উঠেছে প্যারিস সেন্ত জার্মেই (পিএসজি)। আগামী রবিবার ফাইনালে পিএসজির প্রতিপক্ষ হবে বায়ার্ন মিউনিখ অথবা লিওঁ।

ইত্তেফাক/ইউবি

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: