আন্তর্জাতিক স্বর্ণপদক জয়ী অ্যাথলেট সোহেলকে হত্যার হুমকি

sohel-20201120210929

ময়মনসিংহ, ২০ নভেম্বর- জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে আন্তর্জাতিক স্বর্ণপদক জয়ী অ্যাথলেট মো. সোহেল রানাসহ তার তিন ভাইকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে প্রতিবেশী মোশাররফ হোসেন। এ ঘটনায় মামলা করেও কোনো প্রতিকার পাচ্ছেন না তিনি। একের পর এক সোহেলকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে মোশাররফ ও তার লোকজন।

জানা গেছে, অ্যাথলেট সোহেল ১২ বছর বয়সে বিকেএসপিতে ভর্তি হন। ২০১৪ সালে ন্যাশনাল জুনিয়র অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় দুটি স্বর্ণপদক ও একটি ব্রোঞ্জ পদক, ২০১৫ সালে তিনটি স্বর্ণপদক ও দুটি সিলভার পদক, ২০১৬ সালে দুটি স্বর্ণপদক ও একটি সিলভার, ২০১৭ সালে তিনটি স্বর্ণপদক ও একটি সিলভার পদক, ২০১৮ সালে তিনটি স্বর্ণপদক ও দুটি সিলভার পদক লাভ করেন।

এ ছাড়াও তিনি ইন্টারন্যাশনাল অ্যাথলেটিকস অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত ২০১৯ সালের এশিয়ান জুনিয়র গেমস হংকংয়ে সফলতার সঙ্গে অংশগ্রহণ করেন। ২০১৯ ভারতে আয়োজিত এসিএবি কাপ অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে একটি স্বর্ণ ও একটি রোপ্য পদক লাভ করেন।

অ্যাথলেট সোহেল রানা সদর উপজেলার সিরতা ইউনিয়নের চড় খরিচা গ্রামের মো. আব্দুল জলিলের ছেলে। আহতরা হলেন- সোহেলের ভাই রেজাউল করিম মিন্টু (৪০) আশরাফুল ইসলাম (৩৫) ও শাহ আলম কবির (২৫)।

অভিযুক্ত মোশাররফ হোসেন একই গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে। তিনি মামলা তুলে নেয়ার জন্য সোহেলের পরিবারকে হত্যার হুমকি দিচ্ছেন।

এ বিষয়ে অ্যাথলেট সোহেল বলেন, গত ২২ বছর ধরে চড় খরিচা বাজারে ২২ শতাংশ জমি আমরা ভোগ দখল করে আসছি। সম্প্রতি একই এলাকার মৃত আইন উদ্দিনের ছেলে সাজু নিজেকে জমির অংশীদার দাবি করেন। এমতাবস্তায় গত ১৬ নভেম্বর জমিতে দোকান তৈরির কাজ করতে গেলে তৃতীয় পক্ষ সন্ত্রাসী মোশাররফ হোসেন তার দলবল নিয়ে দোকান তৈরির কাজে বাধা দেন।

বিষয়টি ময়মনসিংহের কোতোয়ালী থানায় জানানো হলে পুলিশ এসে মোশাররফ ও তার লোকজনকে বুঝিয়ে পাঠিয়ে দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চলে যাওয়ার পর মোশাররফ হোসেন ২০/২২ জনের একটি দল নিয়ে দেশীয় অস্ত্রসহ আমাদের ওপর হামলা চালায়। আমিসহ আমার তিন ভাইকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা আমাদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) বাড়িতে ফিরে আসি। এ ঘটনায় (১৬ নভেম্বর) রাতে শাহ আলম বাদী হয়ে মোশাররফকে প্রধান আসামি করে ১০ জনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালী থানায় মামলা করেছে।

অ্যাথলেটস সোহেল আরও বলেন, মামলা করার পর থেকে একের একের এক আমাকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে আসামিরা। বিশেষ করে আমাকেই ওরা টার্গেট করেছে। আমি যেন আর খেলাধুলা করতে না পারি।

তিনি অভিযোগ করেন, মামলার পরও আসামিরা আমাদের মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। তারা প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করার পরও পুলিশ ধরছে না। পরিবার নিয়ে সব সময় হুমকিতে আছি।

এ বিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ময়মনসিংহের কোতোয়ালী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) কবির হোসেন বলেন, আসামি না ধরার বিষয়ে আমার কোনো দুর্বলতা নাই। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আসামি ধরা হবে।

এ বিষয়ে কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকরর্তা (ওসি) ফিরোজ তালুকদার বলেন, কেউ যদি তাকে মামলা তুলে নিতে হত্যার হুমকি দেয়, তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তাছাড়া আসামিদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/২০ নভেম্বর

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: