‘ঈদ উপলক্ষে বিকাশের ১ হাজার টাকা’ দেয়ার নতুন গুজব

কিছুদিন আগেই করোনা উপলক্ষে বিকাশ থেকে ৫০০ টাকা করে দেয়া হচ্ছে এমন গুজব চললেও ঈদকে সামনে রেখে শুরু হয়েছে নতুন গুজব। সম্প্রতি বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ ও পেজ থেকে পোস্ট করা হচ্ছে ‘ঈদ উপলক্ষে বিকাশের মাধ্যমে ১ হাজার করে টাকা দিচ্ছে ব্র্যাক ব্যাংক’। আর এই অর্থ পেতে একটি লিংকে ক্লিক করে কিছু তথ্য প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।

সম্প্রতি বিকাশ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ ধরণের প্রতারণার বিরুদ্ধে তাদের অবস্থান পরিষ্কার করলেও সাধারণ মানুষ যেনো কিছুতেই বিষয়টি বুঝতে পাড়ছে না। এ ধরণের লিংকে প্রতিবার ক্লিক করার সঙ্গে সঙ্গেই আপনার কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচার হয়ে যাচ্ছে। শুধু তাই নয়, অনেকে আবার এ ধরণের প্রতারণার ফাঁদে যেচে যোগ দিচ্ছেন ওই ওয়েব সাইটে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে। রেজিস্ট্রেশনের সময় ব্যবহার করছেন নিজের ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর এবং পাসওয়ার্ড হিসেবে দিচ্ছেন ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইলের পাসওয়ার্ড। এর ফলে অনেকের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে বলেও তথ্য পাওয়া যাচ্ছে।

‘বিকাশ ৫০০ ডট কম’ নামের একটি ওয়েব সাইটের মাধ্যমে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে। নতুন করে ‘বিটলি’ নামক লিংক ছোট করে নেয়ার ওয়েব সাইটের সহায়তায় ‘ঈদ বোনাস’ নামে নতুন লিংক ছড়িয়ে দেয়া হচ্ছে। এই ওয়েব সাইট ছাড়াও এ ধরণের বার্তা দিয়ে ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে আরো বেশ কিছু ওয়েব সাইটের ছোট করা লিংক।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করা তরুণ উদ্যোক্তাদের প্রতিষ্ঠান ‘পেনটেস্টার স্পেস’-এর সিইও ইয়াসির আরাফাত বলেন, ‘আমরা কিছুদিন ধরেই বিকাশ৫০০ নামের এই ওয়েব সাইটের কার্যক্রমের দিকে নজর রাখছিলাম। আমাদের কাছে তথ্য রয়েছে, তারা এরই মধ্যে অনেকের ফেসবুকের আইডি ও পাসওয়ার্ড সংগ্রহ করেছে। অনেকে নিজে থেকেই এই ওয়েব সাইটে গিয়ে ফোন নম্বর, জন্ম সাল এবং ব্যক্তিগত তথ্য প্রদান করেছে। সেই সঙ্গে পাসওয়ার্ড হিসেবে দিয়েছে তাদের ফেসবুকের পাসওয়ার্ড। এখনো হয়ত আইডি পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে এই ফেসবুক অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণে নেয়নি এই হ্যাকাররা। কিন্তু তারা এই ফেসবুক অ্যাকাউন্টগুলোর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিলে ঐ ফেসবুক ব্যবহারকারীর করার কিছু থাকবে না। কারণ তার আইডি পাসওয়ার্ড ও সিকিউরিটি ব্যবহার করে কাজটি করা হবে।’

যারা এই লিংকে ক্লিক করেছেন তাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তার জন্য পাসওয়ার্ড ও সিকিউরিটির তথ্যগুলো আপডেট করে নেয়া উচিত বলে জানান তিনি। সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করা ইয়াসির বলেন, ‘সাইবার স্পেসে নিজের নিরাপত্তার জন্য ভেরিফাইড সোর্স ছাড়া নিজের ব্যক্তিগত তথ্য যেমন: নাম, মোবাইল নম্বর, জন্ম তারিখ দেয়া উচিত নয়। খুব প্রয়োজন না হলে কোথাও এই তিনটি তথ্য একত্রে দেয়া উচিত নয়।’

ব্র্যাকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এ ধরণের কোন অফার তাদের নেই। আর ব্র্যাক এবং বিকাশের মূল ওয়েব সাইট ছাড়া তাদের নাম ব্যবহার করা অন্য কোন ওয়েব সাইটে ব্যক্তিগত তথ্য প্রবেশ না করানোর জন্যও অনুরোধ জানায় এই প্রতিষ্ঠানটি।

এর আগেও ‘রক’ নামে পরিচিত জনপ্রিয় তারকা ডোয়াইন জনসনকে নিয়েও অর্থ সহায়তা প্রদানের মিথ্যা ফেসবুক পোস্ট করা হয়। এখনো দেশের বিভিন্ন ক্রিকেটার ও সরকারের মন্ত্রণালয়ের নাম ব্যবহার করে এমন সব সহায়তার পোস্ট ছড়িয়ে দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন ফেসবুক পেজ ও গ্রুপের কমেন্টসে। সৌদি আরব থেকে অর্থ সহায়তার এমন সব ফিশিং পোস্ট করা হচ্ছে যা আসলে গুজব এবং অবৈধভাবে তথ্য হাতিয়ে নেয়ার জন্য ছড়িয়ে দেয়া।

ইত্তেফাক/আরএ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: